যশোরের উৎসবে অর্ধকোটি বই বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ নির্বাচনের উত্তাপে শঙ্কা তৈরি হলেও বরাবরের মতো এবারও বছরের প্রথম দিনে নতুন চাররঙা বই হাতে পেয়েছে শিক্ষার্থীরা। এদিন যশোরে প্রায় অর্ধকোটি নতুন বই তুলে দেওয়া হয়েছে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে। এসব বই বিতরণের সময় জেলার প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রীতিমতো উৎসব স্থানে পরিণত হয়।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার শেখ অহিদুল আলম জানান, গতকাল যশোরের আট উপজেলায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের হাতে ১৫ লাখ ৮০ হাজার ৫২৮ খানা নতুন বই তুলে দেওয়া হয়েছে। যার মধ্যে প্রথম থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ১৪ লাখ ৬৭ হাজার ৮০৪ খানা, প্রাক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের এক লাখ সাত হাজার ৮১০ খানা এবং ইংরেজি ভার্সনের শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে চার হাজার ৯১৪ খানা বই।
এছাড়া, গতকাল বই উৎসবের দিনে জেলার সব মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের নতুন বই দেওয়া হয়েছে।
সপ্তাহ খানেক আগে রীতিমতো ‘যুদ্ধ’ জয় করে যশোর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণিতে ভর্তি হওয়ার সুযোগ পায় ফায়জা আমরীন শখ। গতকাল নতুন বই পেয়ে তাই তার আনন্দ আর আকাঙ্খা একটু বেশিই। বললো, ‘আমি ভর্তি যুদ্ধে জয়ী হয়েছি। এরপর নতুন বই পেয়ে। ভবিষ্যতে আরো জয় অনেক কিছু জয় করবো।’
একই স্কুলের শিক্ষার্থী সৃষ্টি দে উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানায়। সে বলে, ‘বছরের প্রথম দিন বই পেয়ে খুবই খুশি। এজন্য ধন্যবাদ জানাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে।’
গতকাল মঙ্গলবার সকালে যশোর জিলা স্কুল মাঠে বই উৎসব উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল। বেলুন উড়িয়ে তিনি এই উৎসবের উদ্বোধন করেন। পরে তিনি শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে জিলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক একেএম গোলাম আযমের সভাপতিত্বে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) দেবপ্রসাদ পাল, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম আব্দুল খালেক, সহকারি জেলা শিক্ষা অফিসার আব্বাস উদ্দিন, সদর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কামরুজ্জামান জাহাঙ্গীর প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
পরে যশোর সরকারি বালিকা বিদ্যালয়েও বই উৎসব উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক আবদুল আওয়াল। প্রধান শিক্ষিকা লায়লা শিরীন সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) হুসাইন শওকত, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি ডিএম শাহিদুজ্জামান প্রমুখ।
এদিকে, যশোর শহরের মুজিব সড়ক রেলগেট আদর্শ পৌর প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নতুন বছরের প্রথম দিনে (১ জানুয়ারি) নতুন বই উৎসব হয়েছে। সকালে স্কুল প্রাঙ্গণে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন যশোর পৌর মেয়রের পক্ষ থেকে স্কুল পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবক যশোর জেলা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আজাহার হোসেন স্বপন। এ সময় নতুন বই হাতে পেয়ে কোমলমতি শিক্ষার্থীরা আনন্দে উদ্বেলিত হয়ে ওঠে।
বই বিতরণকালে আজাহার হোসেন স্বপন সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখতে গিয়ে বলেন, প্রতি বছরের প্রথম দিন সারা দেশের শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্ব দরবারে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। শিক্ষা ক্ষেত্রের ব্যাপক উন্নয়ন ছাড়াও সর্ব ক্ষেত্রে উন্নয়নের জোয়ার বয়ে দিয়েছে শেখ হাসিনার সরকার। তাই তিনি যাতে দেশ ও জনগণের উন্নয়নের ধারা ধরে রাখতে পারেন, সেজন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্য সকলের দোয়া কামনা করেন। বই বিতরণ কালে অন্যান্যের মাঝে আরও উপস্থিত ছিলেন স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র এম আই নয়ন, স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকা ও অভিভাবক বৃন্দ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন স্কুলের প্রধান শিক্ষক সেলিম হোসেন।
প্রিয় পাঠশালা যশোরে বই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকালে পাঠশালা প্রাঙ্গনে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক সচিব প্রফেসর তসদিকুর রহমান। পাঠশালা পরিচালনা সভার সভাপতি অধ্যক্ষ পাভেল চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বই উৎসবে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক যোগেশ চন্দ্র দত্ত, যশোর জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট মাহমুদ হাসান বুলু, সনাক যশোরের সদস্য এডভোকেট প্রশান্ত দেবনাথ, যশোর সরকারি সিটি কলেজের সহকারি অধ্যাপক অনুপ কুমার ব্যানার্জী, সেনাবাহিনীর অডিট কর্মকর্তা গোবিন্দ ব্যানার্জী, বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি যশোর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রভাষক আব্দুল গফুর প্রমুখ। অতিথিরা শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই তুলে দেন।

শেয়ার