ফিলিপিন্সে শক্তিশালী ভূমিকম্প

সমাজের কথা ডেস্ক॥ দক্ষিণাঞ্চলীয় দ্বীপ মিন্দানাওয়ে ৬ দশমিক ৯ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর ফিলিপিন্স ও ইন্দোনেশিয়ায় সুনামি সতর্কতা জারি করা হলেও পরে তা তুলে নেওয়া হয়।
ফিলিপিন্সের জেনারেল সান্তোস নগরীর ১৯৩ কিলোমিটার পূর্বে ভূপৃষ্ঠের ৩৭ কিলোমিটার গভীরে ভূমিকম্পটির উৎপত্তি হয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতাত্ত্বিক জরিপ সংস্থা (ইউএসজিএস)।
স্থানীয়দের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, শনিবারের ভূমিকম্পে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।
প্যাসেফিক সুনামি ওয়ার্নিং সেন্টার থেকে ভূমিকম্পের উৎপত্তিস্থলের ৩০০ কিলোমিটারের মধ্যে ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপিন্সের উপকূলীয় এলাকা জুড়ে বিপদজনক সুনামি আঘাত হানার সতর্কতা জারি করা হলেও দুই ঘণ্টা পর তা তুলে নেওয়া হয়।
স্কাই নিউজের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ইউএসজিএস প্রথমে ভূমিকম্পের মাত্রা ৭ দশমিক ২ বলেছিল। কিন্তু পরে তারা ভূমিকম্পটি ৬ দশমিক ৯ মাত্রার ছিল বলে জানায়।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, প্রায় এক মিনিট ধরে ভূকম্পন অনুভূত হয়েছে। এ সময় লোকজন আতঙ্কে ছুটে বাড়ির বাইরে বেরিয়ে যান। “তবে ভূমিকম্পে বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হয়নি।”
এক সপ্তাহ আগে আনাক ক্রাকাতাউ আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে সৃষ্ট সুনামিতে ইন্দোনেশিয়ায় চারশতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়।
ভূ-প্রাকৃতিক অবস্থানের কারণে ইন্দোনেশিয়া ও ফিলিপিন্সে প্রায়ই ভূমিকম্প হয়।

বিশ্বের সক্রিয় আগ্নেয়গিরিগুলোর অর্ধেকের বেশি রয়েছে যে এলাকায়, প্রশান্ত মহাসাগরের সেই ‘রিং অব ফায়ার’র মধ্যেই দেশ দুটির অবস্থান।

শেয়ার