যশোরে নাশকতার মামলায় বিএনপির ১৮ জন রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে নাশকতার একটি মামলায় বিএনপির ১৮ জনকে একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বুধবার অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আকরাম হোসেন এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন। আসামিরা হলো, সদর উপজেলার লেবুতলা গ্রামের উত্তরপাড়ার মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোস্তফা মনোয়ারুল ইসলাম হ্যাপি, গহেরপুর গ্রামের মৃত কুটি মিয়ার ছেলে দেলোয়ার হোসেন দিলু, চাঁচড়া বাজার মোড়ের মৃত আবুল হোসেনের ছেলে ওয়াহিদ সেকেন্দার লুলু, ফুলবাড়ি গ্রামের উত্তরপাড়ার কেরামত আলী সরদারের ছেলে শহিদুল ইসলাম, ওসমানপুর গ্রামের কালু মোল্যার ছেলে ইন্তাজ আলী, কোদালিয়া গ্রামের মোল্যাপাড়ার মৃত সমশের আলীর ছেলে আব্দুল আলিম, তালবাড়িয়া গ্রামের উত্তরপাড়ার হাজী আবুল সরদারের ছেলে কবির হোসেন, মধ্যপাড়ার মৃত আবু জাফরের ছেলে নাইমুর রহমান আজিম, উত্তরপাড়ার আব্দুল গফুরের ছেলে বিপুল হোসেন, নতুন উপশহর সি-ব্লকের কাজী আব্দুল বারীর ছেলে ফিরোজ আহম্মেদ, সুলতানপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদের মোল্যার ছেলে মফিজুল ইসলাম, বাউলিয়ার নূর আলী মোড়লের ছেলে ইমরান হোসেন, শফিয়ার রহমানের ছেলে নাজমুল হোসেন, নতুন উপশহর ডি-ব্লকের ইসহাক আলীর ছেলে রেজাউল ইসলাম কামাল, এক নম্বর সেক্টরের মফিজুল্লার ছেলে শামছুর আরেফিন মনু, বি-ব্লকের শুকত আলীর ছেলে বিল্লাল হোসেন রুবেল, সি-ব্লকের শফি উদ্দিন মোল্যার ছেলে কামরুল হাসান চুন্নু এবং পূর্ব বারান্দী মোল্যাপাড়া আমতলার মৃত করিম ড্রাইভারের ছেলে শহিদুল ইসলাম টগর।
জানা গেছে, আসামিরা গত ১৫ ডিসেম্বর বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে শহরের পূর্ব বারান্দীপাড়া কদমতলা আবু মিয়ার মুদি দোকানের সামনে নাশকতার উদ্দেশ্যে একত্রিত হয়। এসময় তাদের কাছে থাকা একটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে এলাকায় আতংক সৃষ্টি করে। খবর পেয়ে সেখানে গেলে পুলিশ দেখে তারা পালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু ধাওয়া করে পুলিশ ওই ১৮জনকে আটক করে। এঘটনায় কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। তদন্ত কর্মকর্তা এসআই আমিনুর রহমান তাদের সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন করেন আদালতে। বিচারক তাদের একদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

শেয়ার