মোরেলগঞ্জে ধানের শীষের প্রার্থীকে ছেড়ে ৯৯ জনকে ৫৪ ধারায় চালান

মশিউর রহমান মাসুম, মোরেলগঞ্জ॥ বাগেরহাট-৪, মোরেলগঞ্জ-শরণখোলা আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী জামায়াত নেতা আব্দুল আলীমসহ ১শ’ জন নেতাকর্মীকে আটক করার পর আব্দুল আলীমকে ছেড়ে দিয়েছে পুলিশ। আটক অপর ৯৯ জনকে মঙ্গলবার রাতে ৫৪ ধারায় বাগেরহাট কোর্টে সোপর্দ করা হয়েছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে থানা পুলিশ আব্দুল আলীমকে তার স্ত্রী ও বড়ভাইয়ের জিম্মায় ছেড়ে দেয়।
আটক ৯৯ জনের মধ্যে উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি মাস্টার মনিরুজ্জামান, পৌর জামায়াতের সভাপতি অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, বিএনপি নেতা মারুফ বিল্লাহসহ জামায়াতে ইসলামী, ছাত্র শিবির, বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা রয়েছেন।
এ সম্পর্কে মোরেলগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) ঠাকুর দাশ মন্ডল বুধবার বলেন, ৯৯ জন নেতাকর্মী আটক আছেন। তাদেরকে আপাতত ৫৪ ধারায় কোর্টে পাঠানো হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। মামলার আলামত হিসেবে অনেক কিছু জব্দ আছে।
এরপূর্বে মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৮টায় বাগেরহাট জেলা পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় এ সম্পর্কে আনুষ্ঠানিক এক প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল আলীমের বাড়ির পুকুর পাড় ও কাচারিঘরে কিছুলোক নাশকতার পরিকল্পনা করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ৯৯জন আটক হয়েছে এবং একটি ওয়ান শুটার গান, ৩ রাউন্ড গুলি, ৬টি পেট্্েরাল বোমা, ৯টি ককটেল ও কিছু লাঠিসোটা উদ্ধার করেছে পুলিশ।
এদিকে এই ঘটনা সম্পর্কে উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর আমীর অধ্যাপক বজলুর রশিদ বাদশা বলেন, মঙ্গলবার বেলা ১০টায় ধানের শীষ প্রার্থীর বাড়িতে নির্বাচনী কর্মী সভা শুরু হয়। ১১টার দিকে বিপুল সংখ্যক পুলিশ বাড়িটি ঘিরে ফেলে। বেলা ১টার দিকে বাড়ির মধ্যে অভিযান শুরু করে। তারা ধানের শীষের প্রার্থী আব্দুল আলীম, উপজেলা জামায়াতের সেক্রেটারি মাস্টার মনিরুজ্জামানসহ ১শ’ নেতাকর্মীকে আটক করে। মধ্যরাতে প্রার্থীকে ছেড়ে দেয়।
এ বিষয়ে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল আলীম বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ কর্মীসভায় পুলিশ বাঁধা দিয়ে আমাকেসহ ১০০ জনকে আটক করে প্রিজন ভ্যানে করে নিয়ে যায়। পরে আমাকে ছেড়ে দেয়’।

শেয়ার