জমানো পয়সায় ভরা ব্যাংক ‘নৌকার জন্য’ মন্ত্রীকে দিল শিশু সিয়াম

15

সমাজের কথা ডেস্ক॥ মুক্তিযোদ্ধা নানা ও দাদার কাছে স্বাধীনতার গল্প শুনে শিশু মনে জন্ম নিয়েছে আওয়ামী লীগের প্রতি ভালোবাসা, নির্বাচন সামনে রেখে তাই দলটির প্রতীক ‘নৌকা’ কিনতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হাতে অনেক দিনের জমানো খুচরা পয়সায় ভরা মাটির ব্যাংকটি তুলে দিল দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র শেখ সিয়াম।
ঢাকার মগবাজার এলাকার একটি স্কুলের ছাত্র সিয়াম এক বছর ধরে ওই ব্যাংকে জমিয়েছিল টাকা আর খুচরো পয়সা। স্কুলে টিফিনের জন্য দেওয়া টাকার একটি অংশ বাঁচিয়ে তা-ই এতে জমা করত সে।ব্যাংকটি ভাঙা দূরে থাক, কাউকে কাছে ঘেঁষতে দিত না ছেলেটি।
‘নৌকার’ জন্য জমানো পয়সা দিতে পেরে অনেক খুশি সিয়াম।
বুধবার সে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলে, “নৌকা কিনতে দিয়েছি। সেই নৌকায় করে ভোট চাইবেন মন্ত্রী।”
ঢাকা-১২ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল মঙ্গলবার বিকালে তাদের বাসায় গেলে ব্যাংকটি তার হাতে তুলে দেয় সিয়াম।
সিয়ামের বাবার নাম শেখ মো. খায়রুজ্জামান। তাদের বাসা মগবাজারের সোনালীবাগে। নানা মো. ইসলাম একজন মুক্তিযোদ্ধা। সিয়ামের দাদা মো. ইউনুস।
শ্বশুড়বাড়ি মুন্সীগঞ্জ জানিয়ে সিয়ামের মা নিপা বেগম বলেন, তার শ্বশুর ও স্বামী ‘স্বাধীনতার পক্ষের’ লোক।
“নানা ও দাদার কাছ থেকে ছোটবেলা থেকে সিয়াম স্বাধীনতার গল্প শুনত। তারপর থেকেই ছন্দে ছন্দে নৌকার মিছিল করে। আর এক বছর ধরে মাটির ব্যাংকে টাকা জমানো শুরু করে।“
নিপা বেগম বলেন, সিয়ামের বিষয়টি জানতে পেরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তাদের বাসায় এসে উপস্থিত হন। তখনই শখের মাটির ব্যাংকটি তার হাতে তুলে দেয় সিয়াম।
সিয়াম বলে, “মন্ত্রীর কাছে নৌকা কেনার জন্য ব্যাংকটি দেই।”
আর মন্ত্রী তাকে শত শত চকলেট দিয়েছে জানিয়ে ছেলেটি বলে, এখন সে অনেক খুশি।
এ ঘটনায় সন্তোষ জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “মানুষের ভালোবাসার জন্য রাজনীতি করি। এই শিশুর ভালোবাসা মনে থাকার মতো দৃষ্টান্ত।”