যশোরে ‘নাশকতার’ উদ্দেশ্যে বোমার বিস্ফোরণ, আটক ১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর শহরের বারান্দী পশ্চিমপাড়ার ‘নাশকতা’ কর্মকা- করার উদ্দ্যেশ্যে বোমা হামলা করার অভিযোগে ১৮জনকে আটক করেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় গত শনিবার একটি মামলা হয়েছে। আটককৃতরা সদর উপজেলার লেবুতলা গ্রামের মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে মোস্তফা মনোয়ারুল ইসলাম হ্যাপী, গহেরপুর গ্রামের মৃত কুটি মিয়ার ছেলে দেলোয়ার হোসেন দিলু, চাঁচড়া বাজার মোড়ের আবুল হোসেনের ছেলে ওয়াহিদ সেকেন্দার লুলু, ফুলবাড়ি উত্তরপাড়ার কেরামত আলী সরদারের ছেলে শহিদুল ইসলাম, ওসমানপুর গ্রামের মৃত কালু মোল্লার ছেলে ইনতাজ আলী, কোদালিয়ার মোল্লাপাড়ার মৃত শমসের আলীর ছেলে আব্দুল আলিম, তালবাড়িয়া উত্তরপাড়া হাজি আবুল সরদারের ছেলে কবির হোসেন, তালবাড়িয়া মধ্যপাড়ার মৃত আবু জাফরের ছেলে নাইমুর রহমান আজিম, আব্দুল গফুরের ছেলে বিপুল হোসেন, নতুন উপশহর সি ব্লক এলাকার মৃত কাজী ‘আব্দুল বারিকের ছেলে ফিরোজ আহমেদ, সুলতানপুর গ্রামের মৃত আব্দুল কাদেরের ছেলে মফিজুল ইসলাম, বাউলিয়া গ্রামের নুর আলীর ছেলে ইমরান হোসেন, শফিয়ার রহমানের ছেলে নাজমুল হোসেন, উপশহর ডি ব্লক এলাকার ইসাহাক আলীর ছেলে রেজাউল ইসলাম কামাল, এক নম্বর সেক্টরের মফিজুল্লার ছেলে শামসুল আরেফীন মনু, বি ব্লক এলাকার শওকত আলীর ছেলে বিল্লাল হোসেন রুবেল, সি ব্লক এলাকার শফি উদ্দিনের ছেলে কামরুল হাসান চুন্নু এবং পূর্ববারান্দী মোল্লাপাড়ার এলাকার মৃত কমির ড্রাইভারের ছেলে শহিদুল ইসলাম টগর।
কোতোয়ালি থানার এসআই শহিদুল ইসলাম দায়ের করা এজাহারে উল্লেখ করেছেন, ওই ১৮ ছাড়াও অজ্ঞাত ২০/২৫ জন বারান্দী কদমতলা মোড়ে রাস্তায় বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করেছে। আইন শৃঙ্খলার অবনতির করার জন্য রাস্তায় ভাংচুর করে যশোরের ঢাকা রোড়ের দিকে মিছিল সহকারে যাচ্ছে। সংবাদ পেয়ে বিকেল সাড়ে চারটার দিকে বারান্দী কদমতলা মোড়ের আবু মিয়ার দোকানের সামনে পৌঁছালে আসামিরা ৪টি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। পরে পিছু ধাওয়া করে ১৮ জনকে আটক করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে অবিস্ফোরিত ৯টি হাত বোমা, কাঁচের মারবেলের টুকরো ৫ পিস, বিস্ফোরিত বোমার জালের কাটি (ছোট লোহার টুকরো) ১০টি. লাল রং এর স্কস টেপের ৭টি অংশ, ৪টি জদ্দার কৌটা এবং ১৫টি বাঁশের লাঠি জব্দ করা হয়। আটক ১৮জনকে রোববার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজাতে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসআই শহিদুল ইসলাম।

শেয়ার