বিজয় দিবসে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় দেশ গড়ার শপথ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় বিজয়ের ৪৭ বছর উদ্যাপন করেছে যশোরবাসী। রোববার দিবসটি উদ্যাপন উপলক্ষে যশোর প্রশাসনের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। বিজয় দিবসের দিন যশোরে সমাবেশ, কুচকাওয়াজ, ডিসপ্লে¬প্রদর্শন ও মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। সূর্যোদয়ের সাথে সাথে কালেক্টরেট চত্বরে তোপধ্বণির মাধ্যমে বিজয় দিবসের কর্মসূচির সূচনা করে জেলা প্রশাসন। যশোর জেলা আওয়ামী লীগ শহরে বর্ণাঢ্য বিজয় র‌্যালি বের করে। এতে নেতৃত্ব দেন সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার সহ নেতৃবৃন্দ।
বিজয় দিবসের দিন সকাল সাড়ে আটটায় যশোর শাম্স উল হুদা স্টেডিয়ামে বর্ণাঢ্য কুচকাওয়াজ ও ডিসপ্লেল প্রর্দশন করা হয়। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা, পুলিশ, আনসার, ভিডিপি, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স, কারারক্ষী, স্কাউটস, গার্লস গাইড, স্কুল-কলেজ-মাদ্রাসাসহ সামাজিক প্রতিষ্ঠান ও শিশু-কিশোর সংগঠন অংশ নেয়। সকাল সাড়ে ৯ টায় সিভিল সার্জন অফিস চত্বরে ছিল রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, সিনেমা হলে মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক তথ্য চিত্র প্রদর্শন ও পৌরপার্কে দুঃস্থ প্রতিবন্ধী শিশুদের সমাবেশ ও ক্রীড়া প্রতিযোগিতা।
সকাল দশটায় শিশু একাডেমিতে জেলা শিশু একাডেমি কার্যালয়ে শিশুদের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক চিত্রাঙ্কন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। সকাল সাড়ে দশটায় শামস্ উল হুদা স্টেডিয়ামে শ্যুটিং প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এগারটায় মুন্শি মেহেরুল্লাহ ময়দানে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও শহীদ পরিবারের সদস্যদের সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল।


সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধকালী মুজিব বাহিনীর বৃহত্তর যশোরের প্রধান আলী হোসেন মনি, উপ-প্রধান অ্যাডভোকেট রবিউল আলম, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুজাহারুল ইসলাম মন্টু, রাজেক আহমেদ ও অ্যাডভোকেট কাজী আব্দুস শহীদ লাল। এছাড়া বিকেল সাড়ে তিনটায় শাম্স উল হুদা স্টেডিয়ামে প্রবীণদেন হাঁটা প্রতিযোগিতা, চারটায় জেলা প্রশাসন বনাম পৌরসভা নাগরিক একাদশের মধ্যে ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যা ছয়টায় টাউন হল ময়দানে অনুষ্ঠিত হয় বিজয় দিবসের আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এতে যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়ালের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, যশোর-২ আসনের এমপি অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির, পুলিশ সুপার মঈনুল হক, মুক্তিযুদ্ধকালীন মুজিব বাহিনীর বৃহত্তর যশোরের উপ-প্রধান অ্যাডভোকেট বরিউল আলম, দৈনিক কালের কন্ঠের বিশেষ প্রতিনিধি কবি ফখরে আলম, জাসদ যশোর জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট অশোক কুমার রায়। এদিকে, এদিন সকাল আটটায় যশোর পুরাতন বাস টার্মিনাল এলাকার বিজয় স্তম্ভে ফুল দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়। বিজয় স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার সহ নেতৃবৃন্দ, যশোরের জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল। এছাড়া বিজয় স্তম্ভে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, পুলিশ সুপার মঈনুল হক, যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু। আরও শ্রদ্ধা নিবেদন করে যশোর জেলা যুবলীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, যুব মহিলা লীগ, ছাত্রলীগসহ সহযোগী সংগঠন, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের যশোর জেলা ইউনিট কমান্ড, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ক্লাব, যশোর সাংবাদিক ইউনিয়ন (জেইজে), যশোর সরকারি এম এম কলেজ, সাংবাদিক ইউনিয়ন যশোর, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান কমান্ড যশোর জেলা শাখা, আমরা মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী, যশোর সরকারি সিটি কলেজ, যশোর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট, বিদ্রোহী সাহিত্য পরিষদ, এসএম সুলতান ফাইন আর্ট কলেজ, জাসদ যশোর জেলা শাখা, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি), যুবদল, ছাত্রদল, শ্রমিক দল, যশোর মেডিকেল কলেজ, যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল, যশোর নার্সিং ইন্সটিটিউট, বাংলাদেশ বেসরকারি মেডিকেল সমবায় সমিতি, উদীচী যশোর, জনতা ব্যাংক সিবিএ, সোনালী ব্যাংক সিবিএ, সনাক যশোর, গণপূর্ত বিভাগ যশোর, যশোর কাস্টমস ভ্যাট ও কমিশনারেট, যশোর শিল্পকলা একাডেমি, শিল্পী ঐক্যজোটের যশোর জেলা শাখা, যশোর ইনসটিটিউট, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, বাম গণতান্ত্রিক জোট যশোর শাখা, বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী যশোর শাখা, ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ইন্সটিটিউট যশোর শাখা, বাসদ যশোর শাখা, জাগপা যশোর শাখা, সিপিবি জেলা শাখা, সুরবিতান সংগীত একাডেমি, দৈনিক যুগান্তর স্বজন সমাবেশ, দৈনিক প্রতিদিনের কথা, যশোর ট্রেনিং কলেজ, যশোর চা পাতা ব্যবসায়ী সমিতি, যশোর আইনজীবী সমিতি, যশোর শিক্ষাবোর্ড মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, অগ্নিবীণা কেন্দ্রীয় সংসদ, যশোর কলেজ, স্বপ্নদেখো সমাজকল্যাণ সংস্থা, যশোর জিলা স্কুল, যশোর সরকারি মহিলা কলেজ, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন, ইঞ্জিনিয়ার ইন্সটিটিউশন বাংলাদেশ, যশোর কেন্দ্রীয় কারাগার, পলিটেকনিক ইন্সটিটিউশন, উপশহর কলেজ, ডা. আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজ, উপশহর মহিলা কলেজ, মাইকেল সঙ্গীত একাডেমি, সপ্তসুর, ভোরের সাথী, যশোর কলেজ, বিসিএমসি প্রকৌশল ও প্রযুক্তি মহাবিদ্যালয়, ওজোপাডিকো লিমিটেড যশোর।
যশোর জেলা প্রশাসকের আয়োজনে কুচকাওয়াজ প্রতিযোগিতা ‘ক’ গ্রুপে প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে সরকারি শিশু পরিবার প্রথম, দ্বিতীয় পূর্ব গাইদহগাছি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও শিশু স্বর্গ প্রাথমিক বিদ্যালয় তৃতীয় স্থান অর্জন করে। মাধ্যমিক পর্যায়ে ‘খ’ গ্রুপে প্রথম জিলা স্কুল, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে পুলিশ লাইন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বালক ও বালিকা।
‘গ’ গ্রুপ কলেজ পর্যায়ে যশোর সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ প্রথম স্থান, দ্বিতীয় স্থানে কপোতাক্ষ পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট ও যশোর শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজ তৃতীয় হয়। অপরদিকে, ডিসপ্লেতে আব্দুল গফুর একাডেমি প্রথম, দ্বিতীয় সরকারি শিশু পরিবার ও তৃতীয় হয় যশোর শিক্ষা বোর্ড মডেল স্কুল এন্ড কলেজ। বিজয় দলের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল ও পুলিশ সুপার মঈনুল হকসহ তাদের সহধর্মীরা।

শেয়ার