অভয়নগরে চাঁদা না পেয়ে জুটমিল মালিকের বাড়িতে বোমা বিষ্ফোরণ

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি॥ যশোরের অভয়নগরে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে রোমান জুট মিল মালিকের বাড়ি বোমা বিষ্ফোরণ ঘটিয়েছে চাঁদাবাজ চক্র। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার মধ্যরাতে উপজেলার নওয়াপাড়া গ্রামের মৃত সাত্তার মিয়ার ছেলে মিল মালিক হাজী মোহাম্মদ আলীর বাড়িতে। এঘটনায় মোহাম্মদ আলী বাদি হয়ে অভয়নগর থানায় জিডি করেছেন।
মিল মালিক হাজী মোহাম্মদ আলী বলেন, চরম আতংকের মধ্যে রয়েছে তার পরিবার। বুধবার দুপুরে অভয়নগর থানায় সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। যার জিডি নং- ৪৫১। এছাড়া পুলিশের নিকট নিরাপত্তা চেয়ে আবেদনও করা হয়েছে। হাজী মোহাম্মদ আলীর ছেলে রাকিব বলেন, মঙ্গলবার দিবাগত মধ্যরাতে তাদের বাড়ির একটি জানালার পাশে বিকট শব্দে বিষ্ফোরিত হয় একটি বোমা। এতে জানালার কাঁচ ও দেয়াল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বুধবার সকালে অভয়নগর থানায় খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
এ ব্যাপারে হাজী মোহাম্মদ আলীর ছোট ভাই সুমন আলী বলেন, কিছুদিন পূর্বে তার বড়ভাইয়ের মোবাইল ফোনে ০১৯০৩-৫১৩৫১২ নম্বর থেকে একাধিক হত্যাকা-সহ বিভিন্ন মামলার পলাতক আসামি প্রসেন দাদা পরিচয়ে এক লাখ টাকা চাঁদা দাবি করা হয়। বার বার বিরক্ত করার ফলে তার ভাই মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখেন। পরবর্তীর্তে গত সোমবার একই নম্বর থেকে তার ব্যবহৃত মোবাইল ০১৯৬৬-০৩৪৩৩৫ নম্বরে চাঁদার টাকা পরিশোধ করতে বলা হয়। অন্যথায় তারা অভয়নগর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা মোল্যা ওলিয়ার রহমানের ন্যায় তার বড়ভাই বা ভাইপো রাকিবকে হত্যা করবে বলে হুমকি দেয়। এরই জের ধরে মঙ্গলবার মধ্যরাতে তাদের বাড়িতে বোমার বিষ্ফোরণ ঘটানো হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন। তিনি আরো বলেন, আজ সকালে প্রসেন পরিচয়ে ওই মোবাইল নম্বর থেকে একটি ম্যাসেজ পান তিনি, যাতে লেখা আছে- ‘জানালার পাশে বোমা মারা হয়েছে। এক লাখ টাকা না দিলে এবার বোমা পড়বে তোর ভাই হাজী মোহাম্মদ আলী বা তার ছেলে রাকিবের শরীরে’।
অভয়নগর থানার ওসি আলমগীর হোসেন বলেন, খবর পাওয়ার পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। হাজী মোহাম্মদ আলী বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। ঘটনার সত্যতা ও অপরাধিদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

শেয়ার