ঝিকরগাছায় আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে বিরোধীয় সম্পত্তি দখলের নেয়ার চেষ্টা

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধি॥ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে যশোরের ঝিকরগাছায় বিরোধিয় সম্পত্তি জোরপূর্বক দখলে নেয়ার চেষ্টা করছে কুমার চন্দ্র দাসগং। ঘটনাটি ঘটেছে গত শুক্রবার সরকারী ছুটি (ঈদের আগেরদিন) দুপুরে উপজেলার পদ্মপুকুর গ্রামে। অভিযোগে জানাগেছে, উপজেলার পদ্মপুকুর গ্রামের ফজলুর রহমান ১৯/০২/১৯৫৮ সালে ১১৩৬ নং কোবলা দলিল মূলে একই গ্রামের আদরনী দাসীর নিকট থেকে ১ একর ২৫ শতক জমি ক্রয় করেন। ফজলুর রহমানের মৃত্যূর পর থেকে তার ছেলেরা দীর্ঘদিন ধরে ওই জমিতে চাষাবাদ করার পাশাপাশি মেহগনি ও লম্বুগাছ লাগিয়ে তার রক্ষনাবেক্ষন করে আসছিলো। কিন্তু গত ২০১৭ সালের ১২ মে জমি বিক্রেতা আদরানী দাসীর (পৌহিত্র) পোতাছেলে কুমার চন্দ্র দাসগং ওই জমির উপর থাকা সমস্ত গাছ জোরপূর্বক কেটে বিক্রি করে দেয়। এ ঘটনায় জমির ক্রয়সুত্রে মালিক ফজলুর রহমানের ছেলে শহিদুর রহমান বাদি হয়ে বিজ্ঞ সহকারী জজ আদালতে দেওয়ানী মামলা নং-৪০/১৭ রিসিভার প্রাপ্ত হয়ে পরবর্তীতে মহামান্য হাইকোর্টের আপিল ৩৫৩৯/১৭ নং মামলার আদেশ মতে ৬৩ নং পদ্মপুকুর মৌজার ৬০১ খতিয়ানের ৪৩৩ দাগের ১ একর ২৫ শতক তফশীল বর্ণিত সম্পত্তি (সহকারী কমিশনার ভূমি) সরকারের দখলে নেয়া হয়। ঐ জমি সেই থেকে সরকারের দখলে থাকলেও পবিত্র ঈদুল ফিতরের ছুটির দিন (শুক্রবার জুম্মা নামাজ আদায়ের সময়) দুপুর ১ টার সময় কুমার চন্দ্র দাসগং ট্রাক্টর (কলের লাঙ্গল) দিয়ে বিরোধীয় জমি চাষ করে জবরদখল করার চেষ্টা করে। মামলার বাদিপক্ষ ও প্রত্যক্ষদর্শী এলাকাবাসীর দাবি, ঘটনাকালে ক্ষুদ্ধ গ্রামবাসির চাপের মূখে দখলকারীরা পিছুহটতে বাধ্য হয়। এ ব্যাপারে ওই দিনই সন্ধ্যায় ঝিকরগাছা প্রেসক্লাবে এসে জমির ক্রয়সুত্রে মালিক (বাদিপক্ষ) জানিয়েছেন এদিন প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের ছুটি ছিলো সেই সুযোগ বিবাদীপক্ষ সরকারের দখলে থাকা সম্পত্তি নিজেদের করে নেয়ার চেষ্টা করেছে। যা দন্ডনীয় অপরাধ বলে উল্লেখ করে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন বাদিপক্ষ।

শেয়ার