মহেশপুরে মিশুক চালকের মৃত্যু নিয়ে ধুম্রজাল

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি॥ মহেশপুরে মিশুক ড্রাইভার মোগল মিয়া (৪৮) মৃত্যু নিয়ে নানা জল্পনা কল্পনা শুরু হয়েছে। কেউ বলছেন সাবেক সংসদ সদস্য পারভীন তালুকদার মায়ার কর্মী সমাবেশের বিরানি খেয়ে প্রাণ গেল মোগল মিয়ার। আবার কেউ বলছেন রাতে বাড়িতে বমি হওয়ার এক পর্যায়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে। তবে পরিবারের সদস্যরা বলছেন হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে যশোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে।
এলাকাবাসি জানান, উপজেলার ফতেপুর ইউনিয়নের যুগিহুদা গ্রামের ভালাইপুর পাড়ার আওয়ামীলীগ কর্মী মিশুক ড্রাইভার মোগল মিয়া মঙ্গলবার দুপুরে মহেশপুর হাইস্কুল মাঠে অনুষ্ঠিত আওয়ামীলীগ নেত্রী সাবেক সংসদ সদস্য পারভীন তালুকদার মায়ার কর্মী সমাবেশে দেওয়া বিরানি খেয়েমোগল মিয়া গুরুতর ভাবে অসুস্থ্য হয়ে পরে। পরে রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে যশোর ২৫০ শ্যর্যা বিশিষ্ঠ হাসপাতালে ভর্তি হয়। শুক্রবার সকাল ৯টার দিকে আওয়ামীলীগ কর্মী মোগল মিয়ার করুন মৃত্যু হয়।
মোগল মিয়ার স্ত্রী লতিফা খাতুন জানান, আমার স্বমীর মৃত্যু নানা ধরণের গুঞ্জন ছড়ানো হচ্ছে। সবাই রাজনীতি করতে চায়। প্রকৃত পক্ষে আমার স্বামী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে। মোগল মিয়ার বোন শহর বানু জানান, আমার ভায়ের মৃত্যু নিয়ে রাজনৈতিক নেতারা একাক সময় একাক কথা বলছেন। প্রকৃত পক্ষে আমার ভায়ের মৃত্যু হয়েছে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে। ইউপি সদস্য হযরত আলী জানান, ইতিপূর্বে মোগল মিয়ার দুইবার স্টোক করেছেন। তিনি শুক্রবার সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এদিকে শুক্রবার বিকালে জানাযা শেষে আওয়ামী লীগ কর্মী মোগল মিয়ার দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে।

শেয়ার