শার্শায় গৃহবধূ জোহরার মৃত্যু ।। হত্যার অভিযোগে স্বামী শ্বশুরসহ ছয় জনের নামে আদালতে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া সাতমাইল গ্রামের জোহরা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। নিহতের ভাই আব্দুল জব্বার বুধবার জোহরার স্বামী, শ্বশুর, শাশুড়ীসহ ছয় জনের বিরুদ্ধে যশোর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন। বিচারক নুসরাত জাবীন নিম্মী অভিযোগটি গ্রহণ করে শার্শা থানায় দায়েরকৃত অপমৃত্যু মামলার প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন।
আসামিরা হলেন, বাগআঁচড়া সাতমাইল গ্রামের (সাতভাই পাড়ার) মোসলেম গাজী ও তার স্ত্রী আছিয়া খাতুন, ছেলে নিহতের স্বামী রিপন হোসেন গাজী, লিটন গাজী এবং মোস্তাব গাজী ও তার ছেলে আক্তারুল ইসলাম।
মামলার বিবরণে জানা যায়, রিপন হোসেন ১৫ বছর আগে জোহরা খাতুনকে বিয়ে করেন। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন অজুহাতে রিপন তার স্ত্রী জোহরা খাতুনকে মানসিক ও শারিরীক নির্যাতন করতো। বাধ্য হয়ে সংসারের যাবতীয় মালামাল ও রিপন হোসেনকে এক লাখ টাকা যৌতুক দেয় জোহরার পরিবার। কিন্তু গত ২০ এপ্রিল জোহরার ভাই জব্বারের মোবাইল ফোনে জানতে পারে জোহরা খাতুন আত্মহত্যা করেছেন। এ সংবাদে তারা জোহরার শ্বশুর বাড়ি গিয়ে দেখে স্বামী রিপন হোসেন বাড়ি থেকে পালিয়ে গেছে। জোহরার গায়ে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এ ব্যাপারে ঘটনার দিন নিহতের পিতা বালুন্ডা গ্রামের নুর ইসলাম শার্শা থানায় হত্যা মামলা করতে গেলে পুলিশ তা গ্রহণ করেনি। থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়। থানা পুলিশ হত্যা মামলা না নেয়ায় নিহতের ভাই আদালতে এ হত্যা মামলা করেন।

SHARE