যশোরের ‘মাদক সম্রাট’ তালেব হত্যা মামলায় ২৮ জনের নামে চার্জশিট

নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ ২৮ জনকে অভিযুক্ত এবং একজনকে অব্যাহতি চেয়ে মাদক সম্রাট আবু তালেব গাজী হত্যা মামলার চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ। যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার এসআই সাহাবুল আলম আদালতে এ চার্জশিট দাখিল করেন।
অভিযুক্তরা হলো, শহরের বারান্দীপাড়ার বদিউজ্জামান পান্নু, মাজহারুল ইসলাম নান্টু, সনি, জাকির হোসেন টুটুল, ফেন্সি কেরামত, তারেক ওরফে ফেন্সি তারেক, জসিম উদ্দিন, সজল, জাকির হোসেন, আব্দুল মানিক, মনা, জাহিদ হোসেন, বকুল হোসেন, বালিয়াডাঙ্গার সুইট, টগর, মনির ওরফে কসাই মনির, বড় মনি, পিন্টু, সুজন, তরিকুল ইসলাম তারিক, জাকির হোসেন, সিটি কলেজপাড়ার কালো রুবেল, সাদ্দাম হোসেন, সদরের কৃষ্ণবাটি গ্রামের মনা শেখ, ভাতুড়িয়া গ্রামের রওশন আলী, শার্শা উপজেলার বুরুজবাগান গ্রামের আইনাল ও ঝিকরগাছার রাজাপুর গ্রামের শাহীন।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৯ জুলাই রাতে শহরতলীর শেখহাটি তরফনওয়াড়ার খেজুর বাগানে গোলাগুলি হচ্ছে বলে জানতে পারে পুলিশ। পুলিশের একটি টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাদক ব্যবসায়ী দু’টি গ্রুপকে গোলাগুলি করা অবস্থায় দেখতে পায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোঁড়ে। সন্ত্রাসীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে কয়েকটি বোমা ছুঁড়ে পালিয়ে যায়। পরে বাগানে তল্লাশি করে পুলিশ বদিউজ্জামান পান্নু ও শাহীনকে আটক করে। এরপর সেখানে তল্লাশীকালে মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে পাওয়া যায়। তাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মৃত ওই ব্যক্তি মাদক স¤্রাট আবু তালেব গাজী হিসাবে পরে পরিচয় পান। এছাড়া অপর মাদক ব্যবসায়ী মনা গ্রুপের সাথে তালেব গ্রুপের গোলাগুলি হয়েছে বলেও জানা যায়।
এ ব্যাপারে এসআই এইচএম মাহমুদ বাদী হয়ে ২৬ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৭/৮জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। তদন্ত শেষে ওই ২৮ জনের বিরুদ্ধে আদালতে এ চার্জশিট দেয়া হয়েছে।

শেয়ার