চিকিৎসায় প্রয়োজন অর্থ সহযোগিতা কপিলমুনিতে সড়ক দুর্ঘটনায় পা হারাতে বসেছে এক স্কুল ছাত্র

কপিলমুনি (খুলনা) সংবাদদাতা॥ সড়কে মড়কের শেষ কোথায় তা কারো জানা নেই, তবে প্রতি দিন ঘটেই চলেছে সড়ক দুর্ঘটনা। অদক্ষ চালক আর আইনের শ্রদ্ধার প্রতি যতœ শীল না হওয়া ও সচেতন হয়ে না চলার কারণে দেশের হাসপাতাল গুলি প্রতিদিন দুর্ঘটনা জনিত রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলেছে। তারই ধারাবাহিকতায় উপজেলার কপিলমুনি প্রাইমারী স্কুলের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র মুক্তাদুল দুর্ঘটনার শিকার হয়ে দীর্ঘ দিন বিভিন্ন হাসপাতালে শুয়েবসে সময় নষ্ট হওয়ায় শেষ পর্যন্ত সে, পঙ্গুত্ব বরণ করতে যাচ্ছে। জানাযায় পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি কলেজ মোড় এলাকার হত দরিদ্র রফিকুল ইসলামের ছোট ছেলে মুক্তাদুল ইসলাম (১০) সরকারী প্রাইমারী স্কুলের ৫ম শ্রেণীর ছাত্র। বিগত ৩ মাস পূর্বে কলেজ রাস্তায় সে বালি ভর্তি গতি সম্পন্ন ট্রলির (অবৈধ যান) নিচে পড়ে বাম পা রক্তাত্ব জখম ও কোমরে আঘাত পায়। এরপর প¦ার্শ্ববতী তালা হাসপাতালে ভর্তির পর থেকে পয়সার অভাবে বিনা চিকিৎসায় ধুকে ধুকে পঙ্গত্ব বরণ করতে যাচ্ছে শিশু মুক্তাদুল। উন্নত চিকিৎসা সম্ভব হচ্ছে না টাকার অভাবে। ইতিমধ্যে পায়ের পাতায় মারাত্বক ইনফেকশন হয়ে পুঁজ পড়ছে। ভাল চিকিৎসা না পেলে শিশু শিক্ষার্থী মুক্তাদুল হয়তো স্বাভাবিক হতে পারবে না। অন্য দিকে ট্রলির মালিক চিকিৎসার ভার নেবে বলে ট্রলি ছাড়িয়ে নিলেও আর কোন খোঁজ খবর নেয় না। এ অবস্থায় অসহায় পরিবারটি বিত্তবানদের সু দৃষ্টি কামনা করেছে। সাহায্য পঠানোর জন্য বিকাশ নম্বর ০১৭১১০১০৬১২।

শেয়ার