এবার সফলতা আসবে: আত্মবিশ্বাসী খালেদা

সমাজের কথা ডেস্ক॥ খালেদা জিয়া বলেছেন, দেশে এক ব্যক্তির শাসন চলছে, তার ইচ্ছেমতো সব কিছু হচ্ছে। একদল ও এক ব্যক্তির শাসনের অবসানের মাধ্যমে দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার ‘ফিরিয়ে আনার’ সংগ্রামের জন্য নেতাকর্মীদের সর্বাত্মক প্রস্তুতি নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন ঠেকানো এবং তার পরের বছর সরকার পতনের আন্দোলনে ব্যর্থ হলেও এবার সফলতা আসবে বলে আশাবাদী বিএনপি চেয়ারপারসন।
রোববার বিকালে মুক্তিযোদ্ধাদের এক সমাবেশে তিনি বলেন, “দেশে গণতন্ত্র নেই, দেশে নির্বাচন হয় না। আমরা আজকে বলতে চাই, আগামী দিনে যে কর্মসূচি আসবে সেজন্য সকলকে প্রস্তুত হতে হবে। আন্দোলন, সংগ্রাম ও নির্বাচন সবকিছুর জন্য আপনাদের প্রস্তুতি নিয়ে এগিয়ে যেতে হবে।
“আমরা বিশ্বাস করি, আমরা সফল হব। আবারও বিএনপির মাধ্যমে এদেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হবে।”
মুক্তিযোদ্ধাদের উদ্দেশে খালেদা জিয়া বলেন, “আপনাদের বয়স হয়েছে, অভিজ্ঞতা আছে। আপনারা দেশ স্বাধীন করেছিলেন। সেই স্বাধীন দেশ আওয়ামী লীগের পরাধীনতার শৃঙ্খলে বন্দী। বাংলাদেশকে তাদের শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করতে হবে।
আগামী সংসদ নির্বাচনের আগে সংসদ ভেঙে দিয়ে ‘নিরপেক্ষ’ সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তরের দাবি জানিয়েছেন বিএনপি প্রধান।
বিজয় দিবস উপলক্ষে গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের উদ্যোগে এই সমাবেশ হয়। সারা দেশ থেকে আগত শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা এতে অংশ নেন।

শেয়ার