এক দফা দাবিতে যশোরসহর বিভিন্নস্থানে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের আল্টিমেটাম

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ এক দফা (প্রধান শিক্ষকের পরের গ্রেডে বেতন-স্কেল নির্ধারণ) দাবিতে যশোরসহ বিভিন্নস্থানে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন করেছেন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকরা। ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে এ দাবি সরকার মেনে না নিলে ২৩ ডিসেম্বর ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে ‘আমরণ অনশন’ কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা দিয়েছেন তারা।
শুক্রবার সকালে যশোরে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসাবে বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক মহাজোট জেলা শাখার উদ্যোগে প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ আল্টিমেটাম দেয়া হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মহাজোটের যশোরের সমন্বয়কারী এবিএম ফারুকুল ইসলাম। তিনি বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড প্রদানের জন্য মন্ত্রণালয়ে একটি সুপারিশ প্রেরণ করা হয়েছে। কিন্তু সহকারী শিক্ষকরা বিগত চার বছর ধরে আন্দোলন করার পাশাপাশি সরকারের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী, আমলাসহ নীতিনির্ধারকগণের দ্বারস্থ হওয়ার পরেও সহকারী শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য নিরসনের কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
তিনি বলেন, প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড প্রদান করা হলে সহকারী শিক্ষকদের সাথে তাদের বেতন স্কেলের ব্যবধান হবে ৪ ধাপ। প্রধান শিক্ষকদের দশম গ্রেড প্রদান আমরাও চাই। কিন্তু তার আগে সহকারী শিক্ষকদের ন্যায্য দাবি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের পরের ধাপে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকের বেতন স্কেল প্রদানের বিষয়টি সমাধান করতে হবে। তা না হলে প্রধান শিক্ষকদের সাথে সহকারী শিক্ষকদের চরম বেতন বৈষম্যের সৃষ্টি হবে।
তিনি বলেন, ২০০৬ সালের আগে প্রশিক্ষকপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকদের পরেই আমাদের বেতন স্কেল ছিলো। কিন্তু তার পর থেকে আমাদের কয়েক ধাপ নিচে নামিয়ে দেওয়া হয়েছে। বর্তমান প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকরা দ্বিতীয় শ্রেণির মর্যাদা পেলেও আমাদের তৃতীয় শ্রেণিতে ফেলে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই বৈষম্যের অবসান চাই। তাই আগামী ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে আমাদের দাবি মেনে নিতে হবে। অন্যথায় পরদিন থেকে ঢাকায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আমরা আমরণ অনশন শুরু করবো।’
এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক নেতা তপন কুমার ম-ল, সুদেব কুমার দেবনাথ, জিন্নাত আলী, বাসুদেব ঘোষ, মোস্তফা কামাল, ওহিদুল ইসলাম, আনিছুজ্জামান, তারক চন্দ্র বিশ্বাস, ইকবাল আহমেদ, গিয়াস উদ্দীন ফিরোজ, মেহেদী আল মাসুদ, রবিউল ইসলাম বাবুল, সাইফুর রহমান, প্রসেনজিৎ ঠাকুরসহ সকল উপজেলার কয়েশ’ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারী শিক্ষকবৃন্দ।
সংবাদ সম্মেলনের আগে দাবি বাস্তবায়নে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন তারা।
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, একই দাবিতে সাতক্ষীরায় সংবাদ সম্মেলন করেছে বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক সমিতি সাতক্ষীরা জেলা শাখা। শুক্রবার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, বাংলাদেশ প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক সমিতি সাতক্ষীরা জেলা শাখার সভাপতি আব্দুল হান্নান বাবুল। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন সিনিয়র সহ সভাপতি আরিফুজ্জামান কাকন, মো. রোকনুজ্জামান, আবুল কালাম আজাদ, সাধারন সম্পাদক আবদুর রব পলাশ, সাংগঠনিক বিধান চন্দ্র মন্ডলসহ শতাধিক শিক্ষক।
সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন আগামী ২২ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের দাবি বাস্তবায়ন না করা হলে ২৩ ডিসেম্বর রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করা হবে।
নড়াইল প্রতিনিধি জানান, এক দফা দাবিতে নড়াইল সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক মহাজোট নড়াইল জেলা শাখার আয়োজনে নড়াইল প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন শিবশংকর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক খন্দকার রোমানা পারভীন কেয়া।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক মহাজোট কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি কাজী কামরুল হুদা, কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক উজ্জ্বল কুমার রায়, জেলা সভাপতি অনিমেশ কুমার বিশ^াস, শিক্ষক নেতা জাকির হোসেন বিপ্লব, আশিকুর রহমান দিপ প্রমুখ।

শেয়ার