আজ ১৪ ডিসেম্বর মোরেলগঞ্জ হানাদার মুক্ত দিবস

মশিউর রহমান মাসুম, মোরেলগঞ্জ ॥ আজ ১৪ ডিসেম্বর মোরেলগঞ্জ মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে পাকিস্তানী হানাদার মুক্ত হয় বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলা। তৎকালীন মুজিব বাহিনীর প্রধান ডা. মোসলেম উদ্দিন বলেন, ‘১৩ ডিসেম্বর মধ্যরাতে মুক্তিযোদ্ধারা মোরেলগঞ্জের ৪টি রাজাকার ক্যাম্প আক্রমণ করেন। আক্রমনে পড়ে রাজাকার কমান্ডার মাও. মোসলেম উদ্দিন ও আরব আলী তাদের বাহিনী নিয়ে নদী পার হয়ে পালিয়ে যায়। এর ৩দিন পরে এসিলাহা উচ্চ বিদ্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাধীন দেশের পতাকা উত্তোলন করা হয়।
যুদ্ধকালীন ছাত্রফ্রন্টের কমান্ডার ও মোরেলগঞ্জ মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার লিয়াকত আলী খান বলেন, ‘১৪ ডিসেম্বর সকাল ১১টায় গোটা মোরেলগঞ্জ হানাদার মুক্ত হয়। এর তিনদিন পর ১৭ ডিসেম্বর পতাকা উত্তোলন করা হয়। ওই সময় বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশারেফ হোসেন খান, মন্নান তালুকদার, এনায়েত তালুকদার, মোশারেফ হাওলাদার, আব্দুল হাই সিকদার ও নুরুল ইসলাম হাওলাদারসহ ৫শতাধিক মুক্তিযোদ্ধা উপস্থিত থেকে জাতীয় পতাকাকে সম্মান প্রদর্শন করেন’।
প্রঙ্গত: স্বাধীনতা যুদ্ধের শেষের দিকে মোরেলগঞ্জ সদরের কালা রায়ের বিল্ডং, সুকুমার রায়ের বিল্ডিং, জিতেন হালদারের বিল্ডিং ও বারইখালী ইউনিয়ন পরিষদ ভবনে রাজাকারদের ক্যাম্প ছিলো। যুদ্ধকালীন রাজাকারের প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা ইউসুফ আলীর ঘনিষ্ট সহচর খাউলিয়া গ্রামের মাওলানা মোসলেম উদ্দিন ও বারইখালী গ্রামের আরব আলী ওই ক্যাম্প ৪টির নেতৃত্বে ছিলেন।

শেয়ার