শ্রীলঙ্কার সুইং বোলিংয়ে বিপর্যস্ত ভারত

সমাজের কথা ডেস্ক॥ ২ ওভারে ১ উইকেটে শূন্য। ৫ ওভারে ২ উইকেটে ২। ১৩ ওভারে ৪ উইকেটে ১৬। ১৭ ওভারে ৭ উইকেটে ২৯। ম্যাচ যত এগোয়, ভারতের স্কোরকার্ডের চেহারা ততই হয়ে ওঠে অবিশ্বাস্য। ধ্বংসস্তুপে দাঁড়িয়ে মহেন্দ্র সিং ধোনির লড়িয়ে ইনিংসে কিছুটা মান বাঁচিয়েছে ভারত। তবে ম্যাচ বাঁচাতে পারেনি।

প্রথম ওয়ানডেতে ধর্মশালায় রোববার ভারতকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ৩ ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেছে ১-০তে। দুই অভিষিক্ত অধিনায়কের লড়াইয়ে রোহিত শর্মাকে হারালেন থিসারা পেরেরা। টানা ১২ ওয়ানডে হারের পর জয়ের মুখ দেখল লঙ্কানরা।

ধর্মশালার উইকেট বরাবরই একটু বাউন্সি। এদিন উইকেটে ছিল ঘাসের ছোঁয়া। সিমিং কন্ডিশনে লঙ্কান পেসারদের দুর্দান্ত সুইং বোলিংয়ে ভারত গুটিয়ে গেছে ১১২ রানেই। শ্রীলঙ্কা জিতে গেছে ২০.৪ ওভারে।

টেস্ট সিরিজে দুর্দান্ত বোলিং করা সুরাঙ্গা লাকমল অনুকূল কন্ডিশনে ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। ১০ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে এই পেসার নিয়েছেন ৪ উইকেট।

বিশ্রামের কারণে ছিলেন না বিরাট কোহলি। এরপরও ভারতের এতটা ব্যাটিং ব্যর্থতা বিস্ময়কর। টস হেরে প্রতিকূল কন্ডিশনে ব্যাট করতে হওয়াটাকেও অজুহাত দেওয়ার জো নেই। টসের সময় রোহিত বলেছিলেন, জিতলে তিনি ব্যাটিংই নিতেন।

লাকমলের ছোবলের আগে শ্রীলঙ্কাকে প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন চোট কাটিয়ে বোলিং শুরু করা অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। দ্বিতীয় ওভারের শেষ বলে ফিরিয়ে দেন শিখর ধাওয়ানকে। ভারতের স্কোরবোর্ডে তখন কোনো রানই নেই।

এরপর লাকমলের সুইং ও বাউন্সে ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা ছিলেন অসহায়। অভিষিক্ত শ্রেয়াস আইয়ার করতে পারেননি দারুণ কিছু। পারেননি টপ ও মিডল অর্ডারের বাকিরাও।

১০ ওভারের টানা স্পেলে ভারতীয় ব্যাটিংয়ের মেরুদণ্ড ভেঙে দেন লাকমল। তার স্পেল শেষে ভারতকে ভোগান শ্রীলঙ্কার তৃতীয় পেসার নুয়ান প্রদীপও।

২৯ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ভারত ছিল নিজেদের সবচেয়ে কম রানে অলআউট হওয়ার শঙ্কায়। ৫৪ রানের সেই রেকর্ডও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে। তবে ধোনি দাঁড়িয়ে গেলেন বলে এক সময় তিন অঙ্কও ছাড়িয়ে যায় দল।

অষ্টম উইকেটে কুলদীপ যাদবকে নিয়ে ৪১ রানের জুটি গড়েন ধোনি। বিপর্যয়ে সাধ্যমত ভালো ব্যাট করেছেন কুলদীপও।

শেষ দুই জুটিতেও দলকে ৪২ রান এনে দেন ধোনি। দুটি জুটিতেই তার সঙ্গী ব্যাটসম্যানের অবদান ছিল শূন্য। ধোনি একাই লড়েছেন, করেছেন রান। আউট হয়েছেন শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে। দলের ১১২ রানে তার একারই রান ৮৭ বলে ৬৫!

ভারতের চার ব্যাটসম্যান আউট হয়েছেন শূন্য রানে, যা তাদের রেকর্ড। ভারতের হয়ে সবচেয়ে বেশি বল খেলে শূন্য রানে আউট হওয়ার অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ড গড়েছেন দিনেশ কার্তিক, ১৮ বলে। জাসপ্রিত বুমরাহ শূন্য করেছেন ১৫ বলে।

রান তাড়ায় ওপেনার দানুশকা গুনাথিলাকা ও লাহিরু থিরিমান্নে আউট হন দ্রুতই। তবে জিততে খুব বেগ পেতে হয়নি লঙ্কানদের। ১০ চারে ৪৬ বলে ৪৯ করে চাপ সরিয়ে দেন উপুল থারাঙ্গা।

পাঁচে নেমে নিরোশান ডিকভেলা ২৬ রানে অপরাজিত থাকেন ২৪ বলে। শ্রীলঙ্কা জিতে যায় ১৭৬ বল বাকি রেখেই।

শেয়ার