শার্শায় সর্বজন শ্রদ্ধেয় কমরেড আব্দুর রশিদ’র দাফন সম্পূন্ন

এম এ রহিম (বেনাপোল) প্রতিনিধি॥ মাওলানা ভাসানীর অনুসারী ন্যাপ যশোর জেলা কমিটির সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সর্বজন শ্রদ্ধেয় কমরেড আব্দুর রশিদের নামাজে জানাযা শনিবার যোহর বাদ শার্শার নিজামপুর কেরালখারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে মরহুমের কফিনে জাতীয় পতাকা দিয়ে মুড়িয়ে গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়। এসময় উপজেলা প্রশাসন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মি ও হাজারো মানুষ বৈরী আবহাওয়ার মধ্যেও উপস্থিত ছিলেন।
কমরেড আব্দুর রশিদ-কেরালখারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক ছিলেন এবং ১৯৭৩সালে শার্শা থেকে জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রার্থী হয়েছিলেন। সততা ত্যাগ দেশপ্রেম সহ বিভিন্ন গুনে গুনান্বিত ছিলেন তিনি। শার্শার কুন্দিপুর গ্রামের মাওলা বক্সের ছেলে আব্দুর রশিদ। তিনি এক ছেলে ৩ মেয়ে ও স্ত্রী সহ অসংখ্য আতœীয় স্বজন এবং গুনগ্রাহি রেছে গেছেন।
শুক্রবার দুপুরে ঢাকার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। পারিবারিক কবরস্থানে মরহুমের লাশের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মরহুমের স্মৃতি চারনে বক্তব্য রাখেন-উপজেলা এসিল্যান্ড ভূমি আব্দুল ওয়াদুদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোজাফ্ফর হোসেন, নাসির উদ্দিন, চেয়ারম্যান আবুল কালাম আযাদ, সাবেক চেয়ারম্যান আলীম রেজা বাপ্পি-কমরেড আমজাদ হোসেন, বিএনপি নেতা হাসান জহির প্রমুখ।
মরহুমের সহকর্মি-কমরেড আমজাদ হোসেন বলেন, আব্দুর রশিদ ও কমরেড- দাউদ হোসেন ছিলেন স্বাধীনতা যদ্ধের অকুতোভয়ী সৈনিক। জীবনকে বাজী রেখে সম্মুখ যুদ্ধে অংশগ্রহন করেন তারা। আব্দুর রশিদকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ তারা। কবি সাহিত্যিক লেখক- কমরেড দাউদ হোসেন বলেন- আব্দুর রশিদ ছিলেন- খাটিদেশপ্রেমী মানুষ। জীবন দশায় তিনি একাধিক মহত্বের পরিচয় দিয়ে গেছেন। একই কথা বলেন সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মিন্নু তিনি বলেন আজ শার্শা বাসি একজন খাটি দেশপ্রেমী মানুষকে হারালো। তার নীতি আদর্শ অনুপ্রেরনা হয়ে থাকবে।

শেয়ার