চলে গেছেন মুক্তিযুদ্ধের সৈনিক বীরপ্রতীক রকেট জলিল
শাহীন চাকলাদারসহ নেতৃবৃন্দের শোক

কামারুজ্জামান কামাল, ঝিকরগাছা থেকে ॥ যশোরের ঝিকরগাছার বীরপ্রতীক খেতাবপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল জলিল (রকেট জলিল) আর নেই। (ইন্নালিল্লাহি …. রাজিউন)। শুক্রবার সকালে উপজেলার পাল্লা গ্রামস্থ নিজ বাসভবনে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে ইন্তেকাল করেন এই বীর যোদ্ধা। মৃত্যুকালে তার বযস হয়েছিলো ৭৫ বছর। তিনি স্ত্রী, তিন পুত্র ও চার কন্যাসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। গতকাল শুক্রবার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন ও বাদ আসর পাল্লা হাইস্কুল মাঠে জানাজা শেষে এই বীর প্রতীককে আজ শনিবার পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হবে। তার মৃত্যুতে শোক ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমাবেদনা জানিয়েছেন যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার। দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু এক বিজ্ঞপ্তিতে এতথ্য জানিয়েছেন।
স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা জানিয়েছেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে তিনি ৮ নং সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার নাজমুল হুদার নেতৃত্বে দেশকে স্বাধীন করার জন্য সাহসী ভূমিকা নিয়ে শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করেন। মুক্তিযুদ্ধে অত্যন্ত সাহসী ভূমিকা রাখার জন্য আব্দুল জলিলকে যুদ্ধ পরবর্তীতে বীর প্রতীক খেতাবে ভূষিত করা হয় রাষ্ট্রীয়ভাবে। আর সে সময় পাক হানাদার বাহিনীর কাছে আব্দুল জলিল ছিলেন আতংক। তিনি রকেটের বেগে পাক হানাদারদের উপর আক্রমণ করতেন। সে কারণে পাক হানাদার বাহিনী তাকে রকেট জলিল নাম দেন। মুক্তিযুদ্ধের বীরপ্রতীক রকেট জলিলের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে তার বাড়িতে ছুটে যান এবং জানাজায় উপস্থিত হন যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, ঝিকরগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম, যশোর জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রাজেক হোসেন, থানার অফিসার ইনচার্জ তদন্ত ফকির আজিজুর রহমান, যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, ঝিকরগাছা উপজেলা আওযামী লীগের সহসভাপতি রমজান শরীফ বাদশা, সাধারণ সম্পাদক মুছা মাহমুদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা রশিদুর রহমান রশিদ, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ওলিয়ার রহমান, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার, মুক্তিযোদ্ধা শাহাজান কবীর, জেলা পরিষদের সদস্য ইকবাল আহমেদ রবি, শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেযারম্যান শফি উদ্দিন, সাবেক পিপি আব্দুল কাদের আজাদ, শিমুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ প্রমুখ। বীর প্রতীক আব্দুল জলিলের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে বিবৃতি দিযেছেন সাবেক বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম। এক বিবৃতিতে তিনি জানিয়েছেন, আব্দুল জলিলের মৃত্যুতে দেশ হারালো এক নিষ্ঠাবান সাহসী দেশপ্রেমিককে। একই সাথে শোক প্রকাশ ও মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেছেন জেলা যুবমহিলা লীগের সভাপতি ও ঝিকরগাছা উপজেলা সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মঞ্জুন্নাহার নাজনীন সোনালী।

শেয়ার