এমপি মনিরের নির্দেশে ঝিকরগাছা ছাত্রলীগকে ধারাবাহিকভাবে নির্যাতনের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করে ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের নির্যাতন করার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল রোববার প্রেসক্লাব যশোরে এক সংবাদ সম্মেলন করে এমন অভিযোগ করেন ছাত্রলীগের উপজেলা শাখার সভাপতি এহসানুল হাবীব শিপলু ও সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন যশোর জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সেলিম রেজা, ঝিকরগাছা উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক ইনামুল হাবিব হুমায়ুন, পৌর শাখার সভাপতি আশরাফুল আলম, সাধারণ সম্পাদক তৌফিক আলম কৌশিক, আরিফুর রহমান, জুয়েল আহমেদ ঝিনুক, হান্নান হোসেন অন্তর প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ‘স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনিরের নির্দেশে গত তিন বছর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উপর অব্যাহতভাবে হামলা করছে সন্ত্রাসীরা। সর্বশেষ ৮ জুলাই উপজেলা ছাত্রলীগ যশোর জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন সফল করতে প্রচার মিছিল করে। এ মিছিলে অংশ নেওয়ার ‘অপরাধে’ সংসদ সদস্যের নির্দেশে বাহিনী প্রধান ইলিয়াসের নেতৃত্বে রিংকু, পালসার বাবু, আশাকুল, জনি, লালন, অর্নব, শিমুল, মুন্না, মানিক, শুভ, মিলন, মামুনসহ সন্ত্রসাীরা ছাত্রলীগ কর্মীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে মাথায় কুপিয়ে জখম করে।
এর আগে এমপি মনিরের নির্দেশে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক দফতর সম্পাদক ইনামুল হাবিব জগলুকে কুপিয়ে জখম করে সন্ত্রাসীরা। উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক কামাল হোসেনকে গুলি করা হয়। আগুনে পুড়িয়ে দেওয়া হয় কামালের মোটরসাইকেলটি। ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাপ্পী ও সাধারণ সম্পাদক শামীম রেজাকে গাড়ি চাপা দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে সংসদ সদস্যের আস্তাভাজন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুসা মাহমুদ। এভাবে ক্যাডার বাহিনী দিয়ে সংসদ সদস্য আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের উপর গত তিন বছর ধরে নির্যাতন চালায়ে আসছে।
তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম মনির। তিনি মুঠোফোনে বলেন, ‘আমি সন্ত্রাসের রাজনীতি করি না। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করা হচ্ছে।’

শেয়ার