আজ যশোর জেলা ছাত্রলীগের ১৭তম সম্মেলন
কাউন্সিলরদের ভোটে নেতৃত্ব নির্বাচনের দাবি তৃণমূলের

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ আজ যশোর জেলা ছাত্রলীগের ১৭তম সম্মেলন। ইতিমধ্যে সম্মেলন স্থল শহরের ঈদগাহ এলাকায় ব্যানার ফেস্টুনে ভরে উঠেছে। জেলা জুড়ে সৃষ্টি হয়েছে এক উৎসবমুখর পরিবেশ। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। সকাল ১০টায় সম্মেলন আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করবেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ। আর অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসাইন।
জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহবায়ক নিয়ামত উল্লাহ বলেন, ‘সফলভাবে সম্মেলন শেষ করতে আমরা সব ধরনের প্রস্তুতি শেষ করেছি। ৫২৭ জন কাউন্সিলরের তালিকা তৈরি করা হয়েছে। অতিথিদের নামের তালিকা ধরে আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। সম্মেলনকে সামনে রেখে নেতাকর্মীদের মধ্যে এক ধরনের উদ্দীপনা সৃষ্টি হয়েছে। উৎসবমুখর পরিবেশে সম্মেলন শেষ হবে।’
জানা যায়, সম্মেলন থেকে সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পেতে ৪০ নেতা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে ১৮ জন সভাপতি প্রার্থী ও ২২ জন সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। এসব প্রার্থী যশোর শহরসহ জেলার বিভিন্ন উপজেলায় নিজেদের প্রার্থিতা জানান দিতে পোস্টার, প্যানাসাইন টানিয়েছেন। কাউন্সিলরদের কাছে হাজির হয়ে নিজের পক্ষে দোয়া ও সমর্থন চাইছেন।
আর তৃণমূল নেতাকর্মীদের দাবি, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় নেতৃত্ব নির্বাচন হতে হবে। যশোর সদরসহ মণিরামপুর, ঝিকরগাছা ও কেশবপুরের একাধিক কাউন্সিলর বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গণতন্ত্রের মানসকন্যা। তার হাত ধরে দেশ উন্নয়ন ও গণতন্ত্রের দিকে ধাবিত। আমাদের সাংগঠনিক নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আমরা চাই এই সংগঠনের নেতৃত্ব নির্বাচন হোক সরাসরি ভোটের মাধ্যমে। এর ফলে প্রকৃত নেতারা যাদের তৃণমূল নেতাদের সাথে সম্পর্ক রয়েছে তারা নির্বাচিত হবেন। সংগঠন গতিশীল ও শক্তিশালী হবে।’
সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ৭৫পরবর্তী সময়ে ছাত্রলীগের কান্ডারী ওবায়দুল কাদের। সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য পীযুষ কান্তি ভট্টাচার্য্য, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সংসদ সদস্য মাহাবুব-উল-আলম হানিফ, আব্দুর রহমান এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এসএম কামাল হোসেন, যশোর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাইফুজ্জামান পিকুল, ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাইফুজ্জামান শিখর, সাবেক সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগ, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন, সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার, সংসদ সদস্য শেখ আফিল উদ্দিন, সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মনিরুল ইসলাম, সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, সংসদ সদস্য রনজিৎ কুমার রায়, সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য্য, যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জয়দেব নন্দী, সাবেক পাঠাগার সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন দিপু।
সম্মেলনে বিশেষ বক্তা হিসেবে থাকছেন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আনোয়ার হোসেন আনু, মাসুমা আক্তার পলি, উপ-স্কুল ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক কাওছার হক, উপনাট্য বিতর্ক সম্পাদক সোহানী হাসান তিথী। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদ। অনুষ্ঠান পরিচালনা করবেন সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল।

 

শেয়ার