নির্যাতনের মামলা করে প্রাণনাশের হুমকির মুখে শার্শার এক নারী

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যৌতুক নির্যাতনের মামলা করে প্রাণনাশের হুমকির মুখে পড়েছেন শার্শার শালকোনা গ্রামের মহসিন আলীর মেয়ে রোজিনা খাতুন। এ বিষয়ে তিনি যশোরের শার্শা থানায় এই ডায়েরি করেছেন।
অভিযোগ মতে, ২০১৪ সালের জুলাইয়ে শার্শার নারিকেলবাড়িয়ার মোশারফ হোসেনের সাথে পঞ্চাশ হাজার টাকা দেনমোহরে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন রোজিনা। এ সময় মোশারফকে তার বাবা আড়াই লক্ষটাকার জিনিসপত্র প্রদান করেন। কিন্তু ‘যৌতুকলোভী’ মোশারফ বিয়ের কিছুদিনের মধ্যেই অতিরিক্ত দুইলাখ টাকা দাবি করেন। যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় তারা নির্যাতনও করতে থাকেন। এর মধ্যে তাদের একটি সন্তানও হয়। তারপরেও গত তিনমাস আগে এই যৌতুকের কারণে সন্তানসহ বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয়। পরে সালিশের মাধ্যমে ঘটনা নিষ্পত্তির চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে মোশারফের বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে এই মামলা করেন রোজিনা। একই ঘটনায় পারবারিক আদালতে সাতজনকে আসামি করে পারিবারিক সহিংসতা, প্রতিরোধ ও সুরক্ষা আইনে আরো একটি মামলা করেন। এতে শ্বশুরবাড়ির লোকজন ক্ষেপে গিয়ে তাকে নানাভাবে হুমকি দিতে থাকে। এক পর্যায়ে স্বামী মোশারফ হোসেন তার বড় দুই ভাই মহাসিন (৪০) ও নাসির (৩৫) এবং বাবা তাইজুদ্দিনের (৬০) বাড়িতে এসে গালিগালাজ করেন এবং মামলা তুলে না নিলে হত্যার হুমকি প্রদান করেন। এ ঘটনায় ডিসেম্বরের ২ তারিখে শার্শা থানায় জিডি হয়েছে।

শেয়ার