মুক্তিযোদ্ধা কাজী জহিরুল ইসলাম দবু গাজী আর নেই।। শাহীন চাকলাদারের শোক

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ উত্তাল একাত্তরের বীরযোদ্ধা আওয়ামী লীগ নেতা কাজী জহিরুল ইসলাম দবু গাজী আর নেই (ইন্না…রাজিউন)। শনিবার সকালে অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃতু ঘোষণা করেন। জহিরুল ইসলাম যশোর শহরের কাজীপাড়ার কাজী নূরুল ইসলামের ছেলে। পরে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শহরের কারবালা কবরস্থানে দাফন করা হয়। তাঁর এই মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারসহ নেতৃবৃন্দ।
জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু জানান, শনিবার ভোরে কাজীপাড়াস্থ বাসভবনে হঠাৎ করে অসুস্থ্য হয়ে পড়েন শহর আওয়ামী লীগের সদস্য মুক্তিযোদ্ধা জহিরুল ইসলাম। এসময় সাথে সাথে তাকে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। তবে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়। মুক্তিযোদ্ধা জহিরুল ইসলামের জানাজা নামাজ কাজীপাড়া জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার, যশোর পৌরসভার মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টু, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদের কেন্দ্রীয় কার্যকরী সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রবিউল আলম, যশোর ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক শেখ রবিউল আলম, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার রাজেক আহম্মেদ, সদর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোহাম্মদ আলী স্বপন, যশোর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ইয়াকুব কবির, যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি সাইফুজ্জামান পিকুল,  ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান মনি চাকলাদার, দপ্তর সম্পাদক মাহমুদ হাসান বিপু, উপ-প্রচার সম্পাদক জিয়াউল হাসান হ্যাপী, জিয়াউল হাসান হ্যাপী প্রমুখ। জানাজা নামাজ শেষে তাকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শহরের কারবালা কবরস্থানে দাফন করা হয়। এদিকে, মুক্তিযোদ্ধা জহিরুল ইসলামের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদারসহ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ। গতকাল এক শোক বার্তা নেতৃবৃন্দ মুক্তিযোদ্ধা জহিরুল ইসলামের আত্মার মাহফেরাত কামনার পাশাপাশি শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

শেয়ার