খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

খুলনা ব্যুরো॥ খুলনা জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা রোববার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট নাজমুল আহসান এতে সভাপতিত্ব করেন।
সভার শুরুতে সভাপতি খুলনা মহানগরীতে রাস্তার শৃঙ্খলা রক্ষার্থে এবং অসহনীয় যানজট এড়াতে দিনের বেলা শহরে ট্রাক চলাচল বন্ধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি বলেন, শহরের বাইরে কোন ট্রাক ট্রার্মিনাল না থাকায় ট্রাক ট্যার্মিনাল নির্মাণের উদ্যোগ নেয়া হবে। তিনি বলেন, ভেজাল খাদ্য ব্যবসায়ীরা যাতে বাজার অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে জনজীবনে দূর্ভোগের কারণ না হয় তার জন্য মোবাইল কোর্ট এবং মাদকের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। সভায় খুলনার সার্বিক আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে সাংবাদিকসহ বিভিন্ন সুধিজন মতামত তুলে ধরেন। তারা বলেন, টাস্ক ফোর্স-এর মাধ্যমে কার্যকর ব্যবস্থা নিতে হবে। ইজিবাইকের সংখ্যা নিয়ন্ত্রণে না আনলে এবং পিকচার প্যালেস মোড়ের ফুটপাথ হকার মুক্ত করতে হলে টার্গেট নির্ধারণ করে কাজ করতে হবে। হকারদের নির্ধারিত জায়গায় পুনর্বাসন না করলে শহরে চলাচল করা অসম্ভব হয়ে পড়বে। মাহেন্দ্রের পিছনে চারজন বসা নিষিদ্ধ করতে পুলিশকে ব্যবস্থা নিতে হবে। সিটি কর্পোরেশন এবং ওয়াসার অপরিকল্পিত রাস্তা খোঁড়াখুড়িতে সারাশহরে ধুলাবালিসহ মানুষের চলাচলে অবর্ণনীয় কষ্ট লাঘবে সমন্বয়ের জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার জানান, যানজট নিরসনে এ বিষয়ক কমিটির মাধ্যমে পাঁচ হাজার ইজিবাইক চলাচলের সিদ্ধান্ত হয়েছে। সে অনুযায়ী এগুলো রং করে দেয়া হবে। কমিটি কাজ শুরু করলে পুলিশ ব্যবস্থা নেয়া হবে। সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তার বক্তব্যে বলেন, আইন প্রয়োগে কঠোর হাতে শৃঙ্খলা রক্ষা করা হবে, কোন আবেগ দেখানোর সুযোগ নেই। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা সভাকে জানান আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠ ও অবাধ নিরপেক্ষ করার লক্ষ্যে প্র¯ত্ততি প্রায় সম্পন্ন করা হয়েছে। তিনি আরও জানন, জেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৫টি ওয়ার্ডে ১৫টি ভোট কেন্দ্র থাকবে। নির্বাচনে মোট ভোটারের সংখ্যা ৯শত ৭০জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার সাতশত ৪১ জন এবং মহিলা ভোটার দু’শ ৩১জন। সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, কেসিসি’র প্রতিনিধি, র‌্যাব ও বিজিবি প্রতিনিধি, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি, সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন। সভায় আইনশৃঙ্খলা প্রতিবেদনে জানানো হয়, খুলনা মহানগরীর আটটি থানায় গত নভেম্বর-১৬ মাসে ডাকাতি ১টি, রাহাজানি ১টি, চুরি ১১টি, খুন ৩টি, দ্রুত বিচার ১টি, ধর্ষণ ২টি, অপহরণ ১টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ১৫টি, মাদকদ্রব্য ৬২টি এবং অন্যান্য ৩৮টিসহ মোট ১৩৫টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত অক্টোবর-১৬ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৫৫টি। জেলার নয়টি থানায় গত নভেম্বর-১৬ মাসে রাহাজানি ১টি, চুরি ৩টি, খুন ৪টি, অস্ত্রআইনে ৩টি, ধর্ষণ ৩টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ১২টি, এসিড নিক্ষেপ ১টি, নারী ও মাদকদ্রব্য ৩১টি এবং অন্যান্য আইনে ৭৯টিসহ মোট ১৪০টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত অক্টোবর-১৬ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৪২টি।
এদিকে দুপুরে খুলনা জেলা সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ কমিটির সভা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এতে উপদেষ্টা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।

শেয়ার