জটিল রোগে আক্রান্ত মেধাবী আরিফুরকে বাঁচাতে অর্থ সহায়তা প্রয়োজন

নয়ন খন্দকার, কালীগঞ্জ ॥ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বোচ্চ শিক্ষা অর্জনের পর আরিফুর নামে এক মেধাবী ছাত্র জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে বিনা চিকিৎসায় ধুকে ধুকে মরতে বসেছেন। অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করা এই মেধাবী ছাত্র রোগের কারনে কোথাও এখনো চাকুরি পাননি। ৫ ভাই ও ২ বোনের মধ্যে সবার ছোট আরিফুর রহমান। পিতা ও বড় ভাই মারা গেছে অনেক আগেই। আর পরিবারের অন্যরা বাস করেন আলাদাভাবে। তার দেখারও কেউ নেই। গরীব ও মেধাবী এ ছাত্রের মাথা গোজার মত একটি ছাউনি ছাড়া কোন কিছুই নেই। চিকিৎসা করানোর মত তার কোন টাকা পয়সা নেই। অর্থের অভাবে তার চিকিৎসাও হচ্ছে না। না খেয়ে চলতে হয় দিনের পর দিন।
আরিফুর রহমান জানান, তিনি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জের মহেশ্বররচাঁদা গ্রামের মৃত ঈমান আলীর ছেলে। অভাব অনটনের সংসারে অনেক দুঃখ কষ্ট অতিক্রম করে লেখাপড়া শিখেছেন। তিনি ২০০৫ সালে মস্তবাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে এসএসসি পাস করেন। ২০০৭ সালে মাহতাব উদ্দীন ডিগ্রি কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। এরপর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ২০১১ সালে অর্থনীতিতে অর্নাস ও ২০১২ সালে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। পড়াশুনার করাকালীন সময়ে তিনি মাথার জটিল রোগে আক্রান্ত হন। সে সময় বিভিন্ন ব্যক্তির সহযোগিতায় বাংলাদেশের অনেক নামী দামী ডাক্তার দেখান। অনেকে তার ওষুধও লেখাপড়ার খরচ দেন। বর্তমানে এ গরীব ও মেধাবী ছাত্র অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছে না। অসুস্থ্য থাকার কারনে কোথাও তার চাকুরীও হচ্ছে না। আরিফুর রহমানের নিজের কোন জায়গা জমি নেই। পরিবারের অন্য সদস্যরা তার খোঁজ-খবরও নেয় না। অনেকদিন তার অনাহারে-অর্ধাহারে কাটে। ওষুধের টাকা জোগাড় করতে অসুস্থ্য অবস্থায় অনেকদিন তাকে পরের জমিতে কামলা খাটতে হয়। অসুস্থ্য আরিফুর রহমান তার চিকিৎসা ও ছোটখাটো যেকোন একটি চাকুরির জন্য স্থানীয় প্রশাসনসহ সমাজের হৃদয়বান, বৃত্তবানদের সহযোাগিতা কামনা করেছেন। অসহায়, গরীব ও মেধাবী আরিফুর রহমানকে বাঁচাতে কেউ সহযোগীতা করতে চাইলে ০১৭২২-১২৬৯২৩ ও ০১৭১১-১২৫৮৭১ নম্বরে যোগাযোগ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

শেয়ার