বন বিভাগের লাইসেন্স না থাকায় যশোরে ১৩ করাতকলকে জরিমানা

jesনিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোরের ১৩টি করাতকলে অভিযান চালিয়ে বুধবার এক লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। লাইসেন্স না থাকায় এ জরিমানা আদায় করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান।
প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে শহরের সন্ন্যাসী দিঘিরপাড়ের মেসার্স আরিফ করাতকলে দশ হাজার টাকা, বিসমিল্লাহ করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স মাদরাসা করাতকল পাঁচ হাজার টাকা, আলহেলাল করাতকলে দশ হাজার টাকা, রূপদিয়ার মেসার্স গোলদার করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স বিশ্বাস করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স মেজবাহ আহম্মেদ করাতকলে দশ হাজার টাকা, বসুন্দিয়া এলাকার মেসার্স বিশ্বাস করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স বিসমিল্লাহ করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স শাহ আলী করাতকলে দশ হাজার টাকা, মেসার্স আদর্শ করাতকলে (১) দশ হাজার টাকা, মেসার্স আদর্শ করাতকলে (২) দশ হাজার টাকা এবং মেসার্স অহেদ করাতকলে পাঁচ হাজার টাকা।
ভ্রাম্যমাণ আদালতের পেশকার বদিউজ্জামান জানান, বেলা ১১টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আনিসুর রহমান এ অভিযান পরিচালনা করেন। এ সময় আদালতের সঙ্গে ছিলেন বন বিভাগের সহকারী বনরক্ষক অমিত ম-ল ও পুলিশ সদস্যরা।
করাতকল লাইসেন্স বিধিমালার ২০১২ সালের (৩) (১)১২ ধারা মতে বন বিভাগের লাইসেন্স না থাকায় ১৩টি প্রতিষ্ঠানকে মোট এক লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে তা আদায় করেন আদালত।

শেয়ার