হিটলারের জন্মস্থল জব্দ করবে অস্ট্রিয় সরকার

hitlar
সমাজের কথা ডেস্ক॥ জার্মান একনায়ক অ্যাডল্ফ হিটলার যে বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেছিলেন সেটি বাজেয়াপ্ত করার পরিকল্পনা করেছে অস্ট্রিয় সরকার। বাড়িটি ঘিরে নব্য নাৎসিদের অতি উৎসাহ প্রতিহত করতে বেশ কয়েক বছর ধরে আলোচনার পর এ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানান অস্ট্রিয়ার কর্মকর্তারা। ১৮৮৯ সালের এপ্রিলে হিটলার অস্ট্রিয়ার ব্রাউনু অ্যাম ইন শহরে জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৭২ সালে সরকার মালিকের কাছ থেকে বাড়িটি লিজ নেয় এবং দীর্ঘদিন ধরে এটি প্রতিবন্ধী সেন্টার হিসেবে ব্যবহৃত হত।
কিন্তু ২০১১ সালে বাড়ি পুনঃসংস্কার নিয়ে সরকার ও বাড়ির মালিকের মধ্যে বিরোধ দেখা দিলে বাড়িটি খালি করে ফেলা হয়।
অস্ট্রিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, নতুন পরিকল্পনায় সরকারের পক্ষ থেকে বাড়ির মালিককে ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
“বর্তমানে আমরা নতুন একটি আইন প্রণয়ন নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছি। ওই আইনে মালিকানা পরিবর্তনে বাধ্য করা এবং সম্পত্তি রিপাবলিক অব অস্ট্রিয়ার কাছে হস্তান্তরের বিধান রাখা হবে।”
“গত কয়েক বছর ধরে আলোচনার পর আমরা বুঝতে পেরেছি, নব্য নাৎসিদের ভবনটি ব্যবহার করা থেকে বিরত রাখতে সেটি বাজেয়াপ্ত করা হচ্ছে একমাত্র উপায়।”
তবে বাড়িটি বাজেয়াপ্ত করার পর সেটি দিয়ে সরকার কি করবে সে বিষয়ে কিছু জানাননি ওই কর্মকর্তা।
হিটলারের জন্ম নেওয়া বাড়িটি ওই এলাকার অন্যান্য বাড়িগুলোর মতই। শুধু বাড়িটির বাইরে একটি পাথরে খোদাই আছে “লাখ লাখ মানুষের মৃত্যুকে স্মরণ। আর কখনো ফ্যাসিবাদ নয়।” সেখানে কোথাও হিটলারের নাম নেই।
ভবিষ্যতে বাড়িটি কিভাবে ব্যবহার করা যায় সে বিষয়ে নানা প্রস্তাব উঠে এসেছে। কেউ কেউ বলেছেন, বাড়িটি সংস্কার করে সেটি ফ্ল্যাটে পরিণত করতে, কেউ বয়স্ক শিক্ষাকেন্দ্র করার, কেউ জাদুঘর করার প্রস্তাব দিয়েছে।
অনেকে বাড়িটি মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়াও প্রস্তাব দিয়েছে, যাদের মধ্যে একজন রুশ এমপি রয়েছেন। তিনি বাড়িটি ক্রয় করার প্রস্তাব দিয়ে বলেছেন, বাড়িটি উড়িয়ে দেব।

শেয়ার