মণিরামপুরের কাশিপুর গ্রামের ডাকাতি প্রস্তুতি ১৩ জনের বিরুদ্ধে সিআইডির চার্জশিট

mamla
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ মণিরামপুরের কাশিপুর গ্রামের ডাকাতি প্রস্তুতি মামলায় ১৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছে সিআইডি পুলিশের পরিদর্শক হারুন অর রশীদ।
অভিযুক্তরা হলেন, যশোর শহরের চাঁচড়া ডালমিল এলাকার চি‎িহ্নত মাদক ব্যবসায়ী আজগর আলী গ্যাদার ছেলে অনিক হোসেন জনি, মণিরামপুরের খাটুরার গ্রামের আব্দুল হামিদ মোড়লের ছেলে রবিউল ইসলাম, শৈলী গ্রামের খোদা বক্স গাজীর ছেলে বাবলুর রহমান, নোয়ালী গ্রামের আতিয়ার গাজীর ছেলে আব্দল মান্নান, কুলিপাশা গ্রামের মোহাম্মাদ আলীর ছেলে জাকারিয়া, লাউড়ি গ্রামের আব্দুল করিম সরদারের ছেলে আনিছুর রহমান, তেতুলিয়া গ্রামের মোজাফ্ফর বিশ্বাসের ছেলে খালিদ হোসেন, মনজুর রহমান, সুন্দরপুর গ্রামের লুৎফর রহমানের ছেলে মিজানুর রহমান, ভোজগাতি গ্রামের মজিদ গাজীর ছেলে নুরুল হক ওরফে কেরু ডাকাত, নোয়ালি গ্রামের মৃত সমশের বিশ্বাসের ছেলে শহিদুল ইসলা ওরফে ঠুটো শহিদ ওরয়ে ডাকাত শহিদ, নেহালপুর গ্রামের বজলুর রহমানের ছেলে মাহাবুবুর রহমান ও হাসাডাঙ্গা গ্রামের মৃত নিজাম উদ্দিনের ছেলে কামরুল ফকির।
জানা গেছে, ২০১৫ সালের ১ জুলাই রাতে মণিরামপুর-ঝিকরগাছা সড়কের রাজগঞ্জ ডাকাতির প্রস্তুতিকালে স্থানীয় লোকজন জনি, রবিউল বাবলুকে আটক করে। এ সময় তাদের গণপিটুনির পর পুলিশকে সোপর্দ করেন। পুলিশ তাদের কাছ থেকে একটি পাইপ গান, এক রাউন্ড বন্দুকের গুলি, একটি চাইনিজ কুড়াল, কিছু জালের কাঠি জব্দ করে। এঘটনায় খেদাপাড়া ক্যাম্পের এসআই রকিব উদ্দিন ডাকাতির প্রস্তুতির অভিযোগে মামলা করেন। প্রথমে থানা এবং পরে সিআইডি পুলিশ মামলাটি তদন্তের দায়িত্ব পায়। তদন্তকালে ঘটনার সত্যতা পেয়ে ওই ১৩ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়া হয়েছে।

শেয়ার