পহেলা বৈশাখে বিকালেই বন্ধ হবে রমনা-সোহরাওয়ার্দীর ফটক

boishak
সমাজের কথা ডেস্ক॥ গত বর্ষবরণের উৎসবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় যৌন নিপীড়নের ঘটনার প্রেক্ষাপটে এবার অনুষ্ঠানে কড়াকড়ির কথা জানিয়েছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।
অপরাধীদের ধরতে ব্যর্থতার বিপরীতে অনুষ্ঠানে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে সমালোচনার মধ্যেই ঢাকা মহানগর পুলিশ জানিয়েছে, পহেলা বৈশাখে বিকাল ৪টার পর আর কাউকে ঢুকতে দেওয়া হবে না রমনা পার্ক ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে।
বাংলা নববর্ষ বরণের অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম একথা জানান।
“বিকাল ৪টার মধ্যে রমনা পার্ক ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের প্রবেশ পথ বন্ধ করে দেওয়া হবে। সেই সাথে বিকাল ৫টার মধ্যে এসব এলাকায় যত অনুষ্ঠান হবে, তা শেষ করতে হবে।”
রাজধানী ঢাকার বর্ষবরণের অনুষ্ঠান ভোরে রমনা বটমূলে ছায়ানটের অনুষ্ঠান দিয়ে শুরু হয়। এরপর রাত পর্যন্ত নানা অনুষ্ঠানে সরব থাকে রমনা, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা।
গত বছর পহেলা বৈশাখে ভিড়ের মধ্যে টিএসসি এলাকায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ফটকের কছে একদল যুবক যৌন নিপীড়ন করে নারীদের। ওই ঘটনায় মামলায় চূড়ান্ত প্রতিবেদন দেওয়ার পর কয়েক মাস আগে চিহ্নিত একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
এবারের বর্ষবরণের অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা নিয়ে গত রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈঠকের পর মন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল বলেন, এবার ভুভুজেলা নিষিদ্ধ থাকবে, সেইসঙ্গে মুখোশ পরা নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

শেয়ার