ভিজিএফের পরিবর্তে আসছে ‘পল্লী রেশনিং কার্ড’

kamrul
সমাজের কথা ডেস্ক॥ দুঃস্থভাতা হিসেবে পরিচিত দরিদ্র জনগোষ্ঠির জন্য সরকারের পরিচালিত খাদ্য কর্মসূচি ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং- ভিজিএফ কার্ড বাতিল করে ৫০ লাখ পরিবারকে পল্লী রেশনিং কার্ড দেওয়া হবে, যার মাধ্যমে পরিবারগুলো সুলভ মূল্যে চাল বা গম পাবে।

সোমবার খাদ্য পরিকল্পনা পরিধারণ কমিটির এক সভার পরে খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম সাংবাদিকদের বলেন, “ভিজিএফ আমরা উঠিয়ে দেওয়ার চিন্তা ভাবনা করছি। আগামী জুলাই মাস থেক ৫০ লাখ পরিবারকে মাসে ৩০ কেজি করে সুলভ মূল্যে চাল বা গম বিতরণ করব।”

তবে চাল বা গমের সেই ‘সুলভ মূল্য’ পরে নির্ধারণ করা হবে বলে মন্ত্রী জানান।

কামরুল বলেন, “ভিজিএফ কার্ডধারীদের মতো হত দরিদ্রদের মধ্যেই এই সুলভ মূল্যের কার্ড বিতরণ করা হবে। জুলাই মাসে এটি কার্যকর করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।”

কার্ড বিতরণে দলীয়করণ এড়াতে স্বচ্ছতা, নিরপেক্ষতা এবং অত্যন্ত সতর্কতার সাথে তালিকা তৈরি করা হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “কোন প্রশ্নবোধক নিয়ে কাজ আমরা করব না। ইউএনও ও খাদ্য কর্মকর্তারা এই কার্ড করবেন।”

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, কার্ডধারীরা বছরের ৫ মাস এর সুবিধা পাবে তবে সেটা লাগাতার পাঁচ মাস হবে না।

ভিজিএফ কার্ডধারীরা বছরে দুই বার সুবিধা পেত।

২৮ টাকা কেজি দরে গম সংগ্রহ : খাদ্যমন্ত্রী জানান, আগামী ১০ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর‌্যন্ত সরকার স্থানীয় বাজার থেকে গম সংগ্রহ করবে।

এ সময়ে দুই লাখ টন গম সংগ্রহ করবে সরকার। এজন্য প্রতিকেজি গমের দাম ২৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে।

ওএমএস কর্মসূচির আওতায় খোলা বাজারে যে চাল বিক্রি হচ্ছে, সেটা এক সপ্তাহ পর থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ে পাওয়া যাবে বলে জানান মন্ত্রী।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী প্রমুখ সভায় অংশ নেন।

শেয়ার