যশোর বোর্ডের এইচএসসি’র বাংলা ১মপত্র পরীক্ষা॥ ভুল প্রশ্নে নিয়মিতদের পরীক্ষা নেওয়ার অভিযোগ ফলাফল খারাপ হওয়ার আশংকা অভিভাবকদের

exam
নিজস্ব প্রতিবেদক ॥ যশোর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার প্রথম দিনের বাংলা ১মপত্র পরীক্ষায় যশোরের উপশহর মহিলা কলেজ পরীক্ষা কেন্দ্রে শিক্ষার্থীদেরকে অনিয়মিতদের (২০১৫ সালের) নৈব্যত্তিক প্রশ্নে ২০ মিনিট পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। ২০ মিনিট পর সংশ্লিষ্টরা এ ভুল বুঝতে পারলে প্রশ্ন পরিবর্তন করে ২০১৬ সালের প্রশ্ন দেওয়া হয়। ততক্ষণে শিক্ষার্থীদের ১০ থেকে ২০টি প্রশ্নের বৃত্ত ভরাট হয়ে যায়। এদিকে, ২০ মিনিট পর প্রশ্ন পরির্বতন করা হলেও উত্তরপত্রের ওএমআর শিটের কোন পরির্বতন করেনি পরীক্ষা কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ। ফলে শিক্ষার্থীরা ২০১৫ সালের অনিয়মিতদের প্রশ্নে যেগুলো উত্তর দিয়ে বৃত্ত ভরাট করেছিলো; সেইস্থানে তারা ২০১৬ সালের নিয়মিত প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেনি। এতে তাদের ফলাফল খারাপ হওয়ার আশংকা করেছেন অভিভাবকরা।
উপশহর ডিগ্রি করেজের অধ্যক্ষ শাহিন ইকবাল বলেন, আমাদের শিক্ষার্থীরা উপশহর মহিলা কলেজ কেন্দ্রে পরীক্ষা দিয়েছে। অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আমি জেনেছি ভুল প্রশ্নে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। ভুল প্রশ্নে ১০ থেকে ১৫টি উত্তর বেশিরভাগ শিক্ষার্থীরা পূরণ করেছে। তার জন্য বেশ দুঃচিন্তায় আছি। কোন সমাধান করা যায় কিনা সে বিষয়ে আগামীকাল আমি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক ও উপশহর মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের সাথে আলোচনা করবো। তবে পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র বলেন, এ ধরনের অভিযোগ আমার কাছে কেউ দেয়নি। অভিযোগ পেলে তা প্রমাণিত হলে আমি যথাযথ ব্যবস্থা নেবো।
এদিকে, উচ্চ মাধ্যমিক সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষার প্রথম দিনের বাংলা-১মপত্র পরীক্ষায় যশোর শিক্ষা বোর্ডে ১৩শ’ ৫৮ জন পরীক্ষার্থী অনুপস্থিত ও অসাদুপায় অবলম্বনের দায়ে একজন শিক্ষার্থী বহিষ্কৃত হয়েছে। বোর্ড সূত্রে জানা গেছে, বাংলা-১ম পত্র পরীক্ষায় যশোর বোর্ডের ২১১ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৯৭ হাজার ৭ শ’ ১৩ জন শিক্ষার্থী। পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ৯৬ হাজার ৩শ’ ৫৫ জন শিক্ষার্থী। অনুপস্থিত রয়েছে ১৩শ’ ৫৮ জন শিক্ষার্থী। কুষ্টিয়ার খাতের আলী পরীক্ষা কেন্দ্রে একজন শিক্ষার্থী বহিষ্কার হয়েছে। অনুপস্থিত পরীক্ষার্থীদের মধ্যে যশোরে ২০৯ শিক্ষার্থী, নড়াইলে ৭৭ শিক্ষার্থী, মাগুরায় ১০৮ শিক্ষার্থী, ঝিনাইদহে ১৬৮ শিক্ষার্থী, কুষ্টিয়ায় ১৪৫ শিক্ষার্থী, মেহেরপুরে ৪৪ শিক্ষার্থী, চুয়াডাঙ্গায় ১১০ শিক্ষার্থী, খুলনায় ২৫৮ শিক্ষার্থী, সাতক্ষীরায় ১৪৩ শিক্ষার্থী, বাগেরহাটে ৯৬ শিক্ষার্থী। প্রথম দিনের পরীক্ষা গ্রহণের বিষয়ে বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র বলেন, কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ও নকলমুক্ত পরিবেশে পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

শেয়ার