ইয়েমেনে তিনটি আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত ২২

eaymen
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইয়েমেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর এডেনে তিনটি আত্মঘাতী বোমা হামলায় অন্ততপক্ষে ২২ জন নিহত হয়েছেন। বিবিসি বলছে, তথাকথিত ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিরা এই হামলাগুলোর দায় স্বীকার করেছে।
দেশটিতে গৃহযুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে আইএস জঙ্গিরা সেখানে বেশ কয়েক দফা হামলা চালায়। মধ্যপ্রাচ্যের এই জঙ্গি গোষ্ঠীটি দেশটির হুতি বিদ্রোহী ও সরকার উভয়পক্ষকেই প্রত্যাখ্যান করেছে। ইয়েমেনের রাজধানীসহ বেশিরভাগ অঞ্চল শিয়া হুতি বিদ্রোহীরা দখল করে আছে।
ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট বাহিনী হুতি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে হামলা শুরুর প্রথম বর্ষপূর্তির মুহূর্তে এই হামলা চালালো আইএস।
দেশটির কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আত্মঘাতী হামলায় বেসামরিক সাধারণ মানুষ ও সেনা সদস্যও নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ডজনেরও বেশি মানুষ।
সৌদি জোট বাহিনীর ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহৃত একটি স্থাপনার কাছে দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়। আর এরপর বন্দুকধারীরা সেখানে হামলার চেষ্টা চালায়।
আর তৃতীয় আত্মঘাতী বোমা হামলাটি চালানো হয় একটি সেনা তল্লাশি চৌকির কাছে। একটি বিস্ফোরক বোঝাই অ্যাম্বুলেন্স উড়িয়ে দিয়ে এই হামলা চালানো হয়।
গেল বছর ইয়েমেনের নির্বাসিত প্রেসিডেন্ট আব্দরাব্বু মনসুর হাদির অনুগত সেনা বাহিনী সৌদি জোটের সহায়তায় হুতি বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণ থেকে এডেন পুনরুদ্ধার করে।
সৌদি জোট রাজধানী সানা থেকে হুতি বিদ্রোহীদের সরিয়ে দিয়ে ইয়েমেনের সরকারকে পুনর্বহালের লক্ষ্যে ২০১৫ সালের মার্চ থেকে ইয়েমেনে অভিযান চালানো শুরু করে।
জাতিসংঘ বলছে, সৌদি জোট ইয়েমেনে হামলা চালানো শুরু করার পর এ পর্যন্ত ৬,২০০ মানুষ নিহত হয়েছেন যাদের অর্ধেকের বেশি বেসামরিক সাধারণ মানুষ।

শেয়ার