নির্বাচনী সহিংসতায় ঝরে গেল ৯ প্রাণ ॥পিরোজপুরে ৫, কক্সবাজারে ২, নেত্রকোনা ১ ও ঝালকাঠিতে ১ জন নিহত

nirbachoni sohingsota

সমাজের কথা ডেস্ক॥ প্রথম ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দেশের বিভিন্ন স্থানে সংঘর্ষ, হামলা, ভাঙচুর ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এতে পিরোজপুর, কক্সবাজার, নেত্রকোনা ও ঝালকাঠিতে নয় জন নিহত হয়েছেন। এছাড়া আহত হয়েছেন সহস্রাধিক। অবশ্য কিছু বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ৭১২ ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকীবউদ্দিন আহমদ।
পিরোজপুর: নির্বাচনের ফলাফলকে কেন্দ্র করে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) গুলিতে পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। তবে নিহতের সংখ্যা ছয় জন বলে দাবি করেছেন এলাকবাসী। এতে আহত হয়েছেন আরও অনেকে।
মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ধানীসাফা ইউনিয়নের সাফা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।
মঠবাড়িয়া পৌর মেয়র ফেরদৌস আহমেদ ও পিরোজপুরে পুলিশ সুপার ওয়ালিদ হোসেন বাংলামেইলকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলার ধানীসাফা ইউনিয়নের সাফা ডিগ্রি কলেজ কেন্দ্রে আগে থেকেই নৌকার সিল মারা বেশকিছু ব্যালট বাতিল বলে ঘোষণা করেন দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট। কিন্তু ব্যালট বাতিলে বাধা দেয় নৌকার সমর্থকরা। এ সময় ম্যাজিস্ট্রেট কাজী জিয়াউলকে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। খবর পেয়ে বিজিবি সদস্যরা এসে তাকে উদ্ধার করেন। এ সময় ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশেই গুলি চালানো হলে পাঁচ জন নিহত হন এবং আহত হন আরও অনেকেই।
নিহতদের মধ্যে তিন জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। তারা হলেন- ফজলু মাতুব্বরের ছেলে সোহেল (২৫), আবদুল মজিদের ছেলে শাহাদাত (৩০) ও সাইদুল মৃধার ছেলে কামরুল মৃধা (২৫)। এরা সবাই নৌকার সমর্থক বলে জানা গেছে।
নেত্রকোনা: ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন নিয়ে সহিংসতার ঘটনায় প্রতিপক্ষের গুলিতে নিহত হয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীর ভাই।
মঙ্গলবার সন্ধ্যায় খালিয়াজুড়ি উপজেলার ৩নং খালিয়াজুড়ি ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। নিহত গোলাম আবু কাওসার ৩নং খালিয়াজুড়ি ইউনিয়নের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গোলাম আবু ইসহাকের ভাই।
খালিয়াজুড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সালাউদ্দিন বাংলামেইলকে নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোটগ্রহণ শেষে সহিংসতায় জড়িয়ে পড়ে আওয়ামী লীগ ও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকরা। এ সময় প্রতিপক্ষের লোকজনের গুলিবর্ষণে মারাত্মক আহত হন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী গোলাম আবু ইসহাকের ছোট ভাই গোলাম আবু কাওসার। পরে তিনি মারা যান। এ ঘটনায় ভোট কেন্দ্র ও আশপাশের এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।
ঝালকাঠি: সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নে নির্বাচনী সহিংসতায় এক ইউপি সদস্য প্রার্থীর বড় ভাই নিহত হয়েছেন। দুপুর আড়াইটায় সদর উপজেলার নবগ্রাম ইউনিয়নে কালি আন্দার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, নির্বাচন নিয়ে দুই মেম্বর প্রার্থী চুন্নু সিকদার ও সজিব হেসেনের সমর্থকদের সংঘর্ষে ২০-২৫ জন আহত হন। এদের মধ্যে গুরতর অবস্থায় চুন্নু সিকদারের বড় ভাই আবুল কাশেম সিকদারকে (৬৫) ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
কক্সবাজার: প্রথম ধাপের ইউপি নির্বাচনের ভোট গণনার সময় কক্সবাজারের টেকনাফে দুইপক্ষের সংঘর্ষে শফিক ও গফুর নামে দুই জন গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গেছেন।
মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে টেকনাফের শাহপরীরদ্বীপের ৭নং ওয়ার্ড কেন্দ্রে মেম্বর প্রার্থী নুরুল আমিন ও সেলিমের সমর্থকের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত শফিক শাহপরীরদ্বীপ মাঝরপাড়ার দুদু মিয়ার ছেলে ও সেলিমের সমর্থক ছিলেন। অপরজনের পরিচয় জানা যায়নি।
টেকনাফ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মজিদ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার