যশোর ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ সম্মিলনী ইনস্টিটিউশন॥ ভাঙল নবীন-প্রবীণ শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা

sommelon school
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপিঠ সম্মিলনী ইনস্টিটিউশনের নবীন-প্রবীণ শিক্ষার্থীদের মিলনমেলা এবারের মতো শেষ হয়েছে। ১২৫বর্ষ পূর্তি উপলক্ষে দুই দিনের উৎসবের গতকাল সমাপনী দিনে প্রবীণ শিক্ষকদের সম্মাননা, স্মৃতিচারণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়েছে।
রোববার উৎসবের সমাপনীতে উৎসব উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক মুক্তিযুদ্ধকালীন মুজিব বাহিনীর বৃহত্তর যশোরের উপ-প্রধান রবিউল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাক্তন ছাত্র প্রফেসর অসিত বরণ ঘোষ।
শিক্ষক সম্মাননা অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক প্রবোধ চন্দ্র সাহা, তারাপদ দাস, মনুজ কান্ত মজুমদার, রবিউল হোসেন, দাস দুলাল হরি, আব্দুল্লাহ খান হামদু, মিজানুর রহমান, সৈয়দ হারিস উদ্দীন, জাহাঙ্গীর আলী, জগৎ নারায়ণ ঘোষ, মোজাহার আলী, সাহিদা চৌধুরী, মুন্সি আবদুর রফিক ও ল্যাবরেটরী সহকারি জীবন কুমার চক্রবর্তীকে সম্মাননা জানানো হয়। শিক্ষক সম্মাননা শেষে প্রাক্তন শিক্ষার্থীরা স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন। শেষে প্রখ্যাত কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী ও প্রতীক হাসানসহ যশোরের শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন।
এছাড়াও বিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠাতা রায় বাহাদুর যদুনাথ মজুমদারের স্মৃতির প্রতি সম্মান জানিয়ে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ‘রায় বাহাদুর যদুনাথ মেলা’র আয়োজন করা হয়।
এদিকে, দুই দিনের উৎসব ঘিরে উৎসবের আমেজ সৃষ্টি হয়। প্রাচীনত প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অনেক দিন পর মিলিত হয়ে আনন্দ হিল্লোলে মেতে উঠে। এই উৎসবে দীর্ঘদিন পরে বন্ধুদের সাথে মিলিত হয়ে সাবেক শিক্ষার্থীরা পুরনো দিনের স্মৃতি চারণ করতে থাকেন। একে অপরের সাথে ভাব বিনিময় করেন।

শেয়ার