স্ত্রীর সাথে পরকীয়ার জেরে বন্ধুকে গুলি॥ ঝিকরগাছার অস্ত্রধারী সেই সন্ত্রাসী বাবু প্রকাশ্যে থাকলেও গ্রেপ্তার হয়নি

oniom durniti
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ নিজ স্ত্রীর সাথে পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ায় ঝিকরগাছায় বাবু নামে এক সন্ত্রাসী গত ৪ এপ্রিল আরেক সন্ত্রাসী বন্ধু লিটনকে গুলি করেন। ঝিকরগাছা বাজারের সেলিম সু স্টোরের সামনে প্রকাশ্যে এ ঘটনা ঘটে। তবে জড়িত বাবুকে বাদ দিয়ে গুলিবিদ্ধ লিটনের বাবা টোকন, শিপন, লিখন ও মিঠু নামে চার যুবকের নামে মামলা করেন। ফলে ঘটনার সাথে জড়িত বাবু প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়ালেও পালিয়ে বেড়াতে হচ্ছে ওই চার যুবককে।
ঝিকরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খবির আহম্মদ জানান, ৪ মার্চের ওই ঘটনায় লিটন হোসেনের বাবা জাহাঙ্গীর হোসেনের করা মামলায় চারজনকে আসামি করা হয়েছে। বাবুকে তিনি মামলার আসামি করেননি। তবে তদন্তে যে তথ্য পেয়েছেন সেখানে বাবুর নাম এসেছে। তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। বাবু জড়িত থাকলে তাকে ছাড় দেওয়া হবে না।
সূত্র মতে, উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামের নজর আলীর পুত্র বাবু একজন সন্ত্রাসী। কয়েক মাস আগে অস্ত্র মামলায় পুলিশ তাকে আটক করে কারাগারে পাঠায়। গত ১৮ ফেব্রুয়ারি বাবু কারাগার থেকে ছাড়া জানতে পারেন যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার লিটন হোসেন নামে এক সন্ত্রাসীর সাথে তার স্ত্রী সীমার পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে বাবু ঝিকরগাছা বাজারে প্রকাশ্যে লিটনকে গুলি করেন। ঘটনার দুই দিন পর লিটনের বাবা বাবুকে বাদ দিয়ে চারজন আসামির নাম উল্লেখ করে ঝিকরগাছা থানায় মামলা করেন। তবে তদন্তে নাম আসলেও প্রকাশ্যে থাকা বাবুকে এখনো গ্রেপ্তার করেনি পুলিশ।

শেয়ার