সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত॥ নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ থেকে বিজয় নিশ্চিত করতে বললেন মিলন-শাহীন

sahi
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে ইউপি নির্বাচনে নৌকার পক্ষে ঐক্যবদ্ধ থেকে বিজয় নিশ্চিত করতে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের আহবান জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। একই সাথে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান নেওয়া নেতাকর্মীদের কোন ছাড় না দিয়ে বহিষ্কার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন ও সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদার এ ব্যাপারে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন। গতকাল রাতে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভা থেকে নেতৃবৃন্দ এই নির্দেশনা দেন। সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্যে শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, ৩১ মার্চ সদরের ১৫ ইউনিয়নে ভোট গ্রহণ। সময় খুব কম। তাই এখন সমালোচনা না করে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে। বিরোধীদের দেখিয়ে দিতে হবে আমরা তথা আওয়ামী লীগ এক; অভিন্ন। ঐক্যবদ্ধ থেকে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করে প্রধানমন্ত্রীর মুখ উজ্জ্বল করতে তিনি নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, নৌকার বিপক্ষে যে কাজ করবে; সে আমার ভাই হলেও কোন ছাড় নেই। সরাসরি বহিষ্কার করা হবে। সভায় প্রধান বক্তা শাহীন চাকলাদার বলেন, অনেকে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী যাচাই-বাছাই করে নৌকার প্রার্থী দিয়েছেন। তাই ঘরের মধ্যে মশারি; তার মধ্যে মশারি না টানিয়ে নৌকার পক্ষে কাজ করতে হবে। এখানে নৌকার বিপক্ষে কাজ করা মানে আওয়ামী লীগের সাথে বেইমানি করা। নৌকার সাথে বেইমানি করা। বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সাথে বেইমানি করা। তাই শেখ হাসিনার সাথে বেইমানি করা লোক কেউ আওয়ামী লীগের হতে পারে না। সুবিধাভোগী কোন নেতার আওয়ামী লীগে স্থান নেই। তিনি নেতাকর্মীদের নৌকা প্রতীকের বিজয় নিশ্চিতে আহবান জানিয়ে বলেন, এবার ব্যক্তি কোন বিষয় নয়। আদর্শের বিষয়। তাই আদর্শের প্রতীক নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে যা যা করার করতে হবে। আর সেই বিজয়ের মাধ্যমে সরকারের বয়স্ক ভাতা, বিধবা ভাতা, ভিজিএফ কার্ডসহ বিভিন্ন সুবিধা মাঠ পর্যায়ে পৌঁছে দিতে হবে। এই সভায় সভাপতিত্ব করেন সদর উপজেলা শাখার সভাপতি মোহিত কুমার নাথ। পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান মিন্টু।
সভায় উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক আব্দুল মজিদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা পিযুষ ভট্টাচার্য, খয়রাত হোসেন, রেজাউল ইসলাম, আফজাল হোসেন, সদর আওয়ামী লীগ নেতা দাউদ হোসেন, আকরাম হোসেন বিশ্বাস, মীর আরশাদ আলী, রহমান, আবু তালেব, রফিকুল ইসলাম ফুল, সাহারুল ইসলাম, সোহরাব হোসেন, আবুল হোসেন খান, সুলতান মাহমুদ বিপুল, শফিকুল আলম পারভেজ, আবু তালেব প্রমুখ।
সভায় আগামী ৩১ মার্চ নির্বাচনে কাজ করার লক্ষ্যে সদরে ৬টি কমিটি গঠন করা হয়।

শেয়ার