‘লক্ষ্য ১৭০ হলে ফল ভিন্ন হতে পারত’

spo
সমাজের কথা ডেস্ক॥ মাশরাফি বিন মুর্তজা মানছেন, পাকিস্তানের বোলিং আক্রমণ অনুযায়ী তাদের লক্ষ্যটা অনেক বড় ছিল। শহিদ আফ্রিদির দলের কাছে ৫৫ রানে হারের পর বাংলাদেশের অধিনায়ক জানিয়েছেন, তার বিশ্বাস ১৭০ রানের লক্ষ্য পেলে খেলার চিত্রটা ভিন্ন হতে পারত।
বুধবার কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে সুপার টেনের ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৫ উইকেটে ২০১ রান তোলে পাকিস্তান। ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি জানান, ২০২ রানের লক্ষ্য তাড়ার মানসিকতা নিয়েই নেমেছিলেন তারা।
“পাকিস্তানের বোলিং অ্যাটাকের বিপক্ষে এটা সব সময় কঠিন ছিল। আমরা চেষ্টা করেছিলাম। প্রথম চার ওভারে আমরা খুব ভালো অবস্থানে ছিলাম। কিন্তু পরবর্তীতে সাব্বির আউট হলে আমরা খুব খারাপ অবস্থায় চলে আসি।”
“হয়তো বা ওই ওভারে দলের রান ৫০ কিংবা ৬০ রানে হয়ে গেলে …কিংবা জুটি হলে ভিন্ন কিছু হতে পারত। মাঠটাও ছোট ছিল। জুটিটাও একটা ব্যাপার। আমি মনে করি, ওরা যে স্কোরটা করেছে সেটা আমাদের জন্য অনেক বড় চাপ ছিল।”
টস জিতলে ব্যাটিং নিতে চেয়েছিলেন মাশরাফি। কিন্তু টানা ষষ্ঠ ম্যাচে টস হারেন তিনি। তবে উইকেটে খুব একটা পরিবর্তন না হওয়ায় টসকে ততটা গুরুত্বপূর্ণ মনে করেন না বাংলাদেশের অধিনায়ক।
“আমরা ১৪৬ এর মত করেছি। লক্ষ্য ১৬০/১৭০ এর মত হলে তাড়া করা যেত। এ রকমই উইকেট ছিল। ১৭০ লক্ষ্য পেলে খেলার ফল ভিন্ন হতে পারত। আমরাও তো পরিকল্পনা করেছিলাম আগে ব্যাটিং করতে। যদি ওটা হত তাহলেও তো ভিন্ন কিছু হত।”
দুইশ’ রানের লক্ষ্য করে দেড়শ’ পর্যন্ত না গেলেও ব্যাটসম্যানদের দুষছেন না মাশরাফি, “আমরা চেষ্টা করেছিলাম একটা পর্যায়ে গিয়ে যেন রান রেটটা একটু বাড়ে। তবে অবশ্যই রানটা বেশি হয়ে গিয়েছিল পাকিস্তানের বোলিং অ্যাটাক অনুযায়ী।”

শেয়ার