মুস্তাফিজকে নিয়ে ঝুঁকি নেয়নি বাংলাদেশ

musta

সমাজের কথা ডেস্ক॥ চোট কাটিয়ে ফেরার খুব কাছে ছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। তবে দল একটুও ঝুঁকি নিতে চায়নি বলেই খেলানো হয়নি তরুণ এই পেসারকে।
সাইড স্ট্রেইন নিয়ে মুস্তাফিজ মাঠের বাইরে আছেন দুই সপ্তাহের বেশি হলো। ‘গ্রেড ওয়ান’ সাইড স্ট্রেইন সাধারণত ১-২ সপ্তাহেই পুরোপুরি ভালো হয়ে যায়। মুস্তাফিজও সেরে ওঠার খুব কাছাকাছি। নেটে বোলিং করছেন কয়েক দিন হলো।
পাকিস্তান ম্যাচে তাকে খেলানো হবে বলে ধারণা করা হচ্ছিলো। ম্যাচের আগে গা গরমের পর মাঠে বোলিংও করলেন মুস্তাফিজ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দেখা গেলো একাদশে আবারও নেই তার নাম।
ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মাশরাফি ব্যাখ্যা করলেন আবারও মুস্তাফিজকে বাইরে রাখার কারণ।
“মুস্তাফিজ খেলার খুব কাছেই ছিল। শেষ পর্যন্ত নিতে পারিনি ওকে। আমরা বিন্দুমাত্রও ঝুঁকি নিতে চাই না ওকে নিয়ে। এজন্যই রাখা হয়নি।”
প্রথম রাউন্ডে মুস্তাফিজকে ছাড়াই দারুণভাবে উতরে গেছে বাংলাদেশ। কিন্তু বুধবার কলকাতায় পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রকটভাবেই অনুভূত হয়েছে মুস্তাফিজের অভাব। অধিনায়কের আশা, পরের ম্যাচ থেকেই পাওয়া যাবে দলের সেরা বোলারকে।
“মুস্তাফিজ দলের সেরা বোলার। আমরা খুব করে চাইছিলাম আজকের ম্যাচটি খেলুক। প্রথম ম্যাচটি সব সময়ই কঠিন। কিন্তু আমরা এটাও চাই, ও পুরোপুরি সুস্থ হলে তখনই কেবল খেলবে। আজকের ম্যাচে খুব কাছে ছিল। আশা করি, পরের ম্যাচেই সে খেলবে।”
পরের ম্যাচের আগে বেশ কটা দিন সময় পাচ্ছে বাংলাদেশ। ২১ মার্চ বেঙ্গালুরুতে প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া। নতুন করে কিছু না হলেও ওই ম্যাচে মুস্তাফিজের খেলা এক রকম নিশ্চিতই বলা যায়।

শেয়ার