সৌদি আরবে ‘ক্রসফায়ারে’ আইএসের ছয় ‘অনুসারী’ নিহত

sowd
সমাজের কথা ডেস্ক॥ সৌদি আরবে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) প্রধান আবু বকর আল বাগদাদির প্রতি ‘আনুগত্য ঘোষণাকারী’ ছয় ব্যক্তি নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে ক্রসফায়ারে নিহত হয়েছেন।
বলা হচ্ছে, শুক্রবারের এ ঘটনায় নিহত ছয় ব্যক্তি গত মাসে সৌদি এক সেনাকে গুলি করে হত্যা করে হত্যার ভিডিও অনলাইনে পোস্ট করেছিলেন। নিহত সৌদি সেনা ওই ঘাতকদের আত্মীয় ছিলেন।
অনলাইনে পোস্ট করা ওই ভিডিওতে দেখা যায়, আইএস নেতা বাগদাদির প্রতি আনুগত্য ঘোষণাকারী ওই ছয়জন এক ব্যক্তিকে, যাকে পরে বদর হামিদি আল রাশিদি বলে শনাক্ত করা হয়, গুলি করে হত্যা করছে।
বদর সৌদি আরবের বিশেষ জরুরি বাহিনীর সদস্য হিসেবে কাসিম অঞ্চলে কর্মরত ছিলেন।
আইএসের আদেশে, না তারা নিজেরাই বদরকে খুন করেছেন, সে বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
সৌদি রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা এসপিএ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক বিবৃতির বরাতে জানায়, আর্ত্মসমর্পণে অস্বীকার করে ঘাতকরা পুলিশের দিকে গুলি ছুঁড়তে শুরু করে, এক পর্যায়ে নিরাপত্তা বাহিনীর পাল্টা গুলিতে তারা সবাই নিহত হন।
২০১৪-র নভেম্বর থেকে সৌদি আরবে ধারাবাহিকভাবে চালানো বেশ কয়েকটি বোমা হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে আইএস। এসব হামলায় ৫০ জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। নিহতদের বেশিরভাগ শিয়া মুসলিম। তবে এদের মধ্যে ১৫ জনেরও বেশি নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য রয়েছেন।
সৌদি নিরাপত্তা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সৌদি আরবের ভিতরে থাকা আইএস সমর্থকরা মূলত স্বেচ্ছাচালিত হয়ে কাজ করেন। আইএসের উপর তাদের নির্ভরশীলতা সীমিত পর্যায়ের, তা শুধুমাত্র পরিকল্পনা প্রণয়ণ ও উপদেশের সীমিত গণ্ডির মধ্যে সীমাবদ্ধ।
এ কারণে তাদের শনাক্ত করা শক্ত, তবে একই কারণে সুরক্ষিত লক্ষ্যস্থলে হামলা চালানোর মতো সক্ষমতাও তাদের নেই।

শেয়ার