বিএনপিতে অশনি সংকেত প্রস্তুত হচ্ছে জিয়ার দল

zia
সমাজের কথা ডেস্ক॥ কানাঘুষা চলছিলো অনেক দিন ধরেই। এবার শোনা যাচ্ছে, সব পাকাপাকি প্রায়। শিগগিরই বাঘের ঘরে ঘোগের বাসা দেখিয়ে ছাড়বেন আহমেদ কামাল। জিয়াউর রহমান যেহেতু তার বড় ভাই, তাই তার অধিকারই সর্বাগ্রে।
তিনি মনে করছেন, জিয়াউর রহমানের মূল আদর্শ থেকে সরে গেছেন তার স্ত্রী খালেদা জিয়া ও পুত্র তারেক রহমান। জিয়ার আদর্শের সঙ্গে তাদের দূরত্ব এতোটাই বেড়েছে যে, এখন আর কিছুতেই তাদের ট্র্যাকে ফিরিয়ে আনা সম্ভব নয়। এমনকি সম্ভব নয় সংস্কার করে বিএনপিকে পরিশুদ্ধ করাও।
তাই জিয়াউর রহমানের আদর্শ প্রচারের জন্যই নতুন দল দরকার। আর নতুন দলের হাল ধরার জন্য তিনি নিজেই সবচেয়ে উপযুক্ত ব্যক্তি।
আহমেদ কামালের এমন দর্শনে কিছু সহমর্মী আর ভক্তও জুটে গেছে এরইমধ্যে। মাস দুয়েক ধরে শান্তিনগরের একটি হোটেলে নিয়মিত মিলিত হচ্ছেন তারা। খোশ গল্প আর আড্ডার ফাঁকে ফাঁকে চলছে পরিকল্পনার বুনন।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, আহমেদ কামালের নেতৃত্বে নতুন যে দল হচ্ছে সে দলের যারা নেতা হবেন তাদেরই একজনের মালিকানায় আছে শান্তিনগরের ওই হোটেল।
সেই হোটেলে নীতি নির্ধারণীমূলক আলোচনা ছাড়াও বিভিন্ন ফোরামেও এখন নতুন দলের প্রয়োজনের কথা অকপটে বলছেন আহমেদ কামাল।
সম্প্রতি ইনস্টিটিউশন অব ইঞ্জিনিয়ার্সে এক আলোচনা সভা শেষে জিয়ার আদর্শে নতুন দল গঠনের আওয়াজ দেন আহমেদ কামাল। অবশ্য তারও কয়েক মাস আগে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে শুরু করেন।
তার ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, খালেদা জিয়া ও তারেকের অনুসারী অনেকেই জিয়ার আদর্শে গড়া নতুন দলের নেতা হতে মুখিয়ে আছেন। বিশেষ করে সিনিয়র নেতাদের মধ্যে যারা নানা কারণে তারেক রহমানের আচরণে বিরক্ত তারা আগ্রহী সবচেয়ে বেশি। জিয়াউর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর হিসেবে পরিচিত এসব নেতা কিছুতেই তারেক রহমানের নেতৃত্বে রাজনীতি করতে চাইছেন না।
এরই মধ্যে শমসের মবিন চৌধুরী রাজনীতি ছেড়ে দিয়ে যে নজির প্রতিষ্ঠা করেছেন, সে নজির হয়তো আরো অনেকেই স্থাপন করতেন। কিন্তু আহমেদ কামালের নতুন দলে নতুন করে স্বপ্ন দেখছেন তারা।

শেয়ার