বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরির তদন্তে ফায়ারআই

fire eye

সমাজের কথা ডেস্ক॥ কেন্দ্রীয় ব্যাংক থেকে ৮০০ কোটি টাকা চুরি যাওয়ার ঘটনা তদন্তে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার নিরাপত্তা কোম্পানি ফায়ারআই ইনক ম্যানডিয়েন্ট ফরেনসিক বিভাগের সহযোগিতা নিচ্ছে বাংলাদেশ। এ কাজের সঙ্গে যুক্ত কয়েকজনের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা রয়টার্স এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
সিলিকন ভ্যালি ভিত্তিক যুক্তরাষ্ট্রের এই কোম্পানিটি এর আগেও বিশ্বের বেশ কয়েকটি বড় সাইবার চুরির ঘটনা তদন্ত করেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরির ঘটনা তদন্তে পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ড ইনফরমেটিক্স তদন্তের সঙ্গে ফায়ারআইকে যুক্ত করেছে।
ওয়ার্ল্ড ইনফরমেটিক্সের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বিশ্বব্যাংকের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সাবেক উপ-প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাকেশ আসথানা এর প্রতিষ্ঠাতা। রাকেশ আসথানাই এ তদন্তে সহযোগিতা করতে ফায়ারআইকে নিয়োগ করেছেন বলে স্পর্শকাতর এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু সূত্র জানিয়েছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের জ্যেষ্ঠ একজন কর্মকর্তা বলেন, নিউইয়র্কের রিজার্ভ ব্যাংক থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ হ্যাকাররা কীভাবে চুরি করেছে, তা তদন্তে সহযোগিতার প্রস্তাব দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। এছাড়া সাম্প্রতিক সময়ের বড় ধরনের এ চুরির ঘটনা তদন্তের ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই) ও মার্কিন বিচার বিভাগের অনানুষ্ঠানিক আলোচনাও হয়েছে।

অর্থ চুরির প্রায় মাসখানেক পর ঘটনাটি প্রথমে আলোচনায় আসে ফিলিপাইনের কিছু গণমাধ্যমে এ বিষয়ে সংবাদ প্রকাশের পর। তবে মাস পেরিয়ে এ নিয়ে আলোচনা শুরু হলেও এফবিআই, মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা, বিচার বিভাগ ও রাজস্ব বিভাগের ক্রাইমস এনফোর্সমেন্ট নেটওয়ার্ক এ বিষয়ে কিছু বলতে চায়নি। নিউইয়র্কের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংকও তেমন তথ্য দেয়নি অর্থ চুরির এ ঘটনা নিয়ে। নিউ ইয়র্কের এ ব্যাংকটি বলছে, তাদের সিস্টেম হামলার শিকার হয়েছে এ ধরনের কোনো তথ্য-প্রমাণ নেই। তবে এ বিষয়ে তারা বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানায়।

শেয়ার