আরও পারমাণবিক পরীক্ষার নির্দেশ উত্তর কোরিয়ার

north korea

সমাজের কথা ডেস্ক॥ আরও বেশি করে পারমাণবিক অস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে নিজেদের পরমাণু হামলা চালানোর সক্ষমতা বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উন। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা কেসিএনএ শুক্রবার এ খবর প্রকাশ করেছে।
কেসিএনএ’র প্রতিবেদনে বলা হয়, কিম নিজে একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পর্যবেক্ষণ করেন এবং পরে ওই নির্দেশ দেন। তবে কবে ওই পরীক্ষা চালানো হয়েছে তা প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়নি। বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়া সমুদ্রে স্বল্প-পাল্লার দুইটি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায়।
এর আগে কিমের বরাত দিয়ে কেসিএনএ জানিয়েছিল, উত্তর কোরিয়ার হাতে ক্ষুদ্র পারমাণবিক ওয়ারহেড রয়েছে। যেটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের মাধ্যমে নিক্ষেপ করা সম্ভব। জানুয়ারিতে চতুর্থবারের মত পরমাণু পরীক্ষা এবং ফেব্রুয়ারিতে দূর-পাল্লার রকেট উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া।
তারপর থেকেই কোরিয়া উপদ্বীপে উত্তেজনা বিরাজ করছে। সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার উপর নতুন করে আরও কঠোর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে জাতিসংঘ ও যুক্তরাষ্ট্র।
নতুন করে পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা জাতিসংঘ নিষেধাজ্ঞার স্পষ্ট লঙ্ঘন। ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ওপরও জাতিসংঘ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। যদিও পিয়ংইয়ং এ নিষেধাজ্ঞা মানবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে।
কয়েক দিন আগে কিম নিজেদের অস্ত্রভান্ডারের সক্ষমতা ও নির্ভুলতার আরও উন্নতি এবং যে কোনও সময় যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ায় হামলা চলানোর জন্য সেনাবাহিনীকে প্রস্তুত থাকারও নির্দেশ দিয়েছেন।
নতুন করে আরও বেশি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার চালানোর নির্দেশ দেওয়ার খবর প্রকাশ পাওয়ার পর দক্ষিণ কোরিয়ার ইউনিফিকেশন মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেঅং জুন-হি বলেন, “এটি পৃথিবী কিভাবে কাজ করছে সে সম্পর্কে বিন্দুমাত্র ধারণা না থাকা একজন ব্যক্তির বিরক্তিকর ও কান্ডজ্ঞানহীন আচরণ ছাড়া আর কিছু নয়।”

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি-মুন পিয়ংইয়ংকে ‘উস্কানিমূলক কার্যক্রম থেকে বিরত’ থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।
উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী মিত্র চীন সব পক্ষকে ‘ধৈর্য্যশীল ও সাহসী’ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। দেশটি বিবাদমান পক্ষগুলোকে ‘সবার মঙ্গলকামনা ও আলোচনার পথ’ বেছে নেওয়ার কথাও বলেছে।

শেয়ার