খুলনায় বিএনপির প্রার্থীকে ‘কুপিয়ে জখম’

khulna medical college hospital
সমাজের কথা ডেস্ক॥ খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপির এক প্রার্থীর উপর হামলা ও কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
শুক্রবার রাতে আমীরপুর ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান ও বিএনপির প্রার্থী খায়রুল ইসলাম জনির উপর এই হামলা হয় বলে তিনি অভিযোগ করেছেন।

জনি কাছে অভিযোগ করেন, তিনি শুক্রবার রাতে বাইনতলা স্কুলের মোড়ে একটি মার্কেটের সামনে বসে কথা বলছিলেন।
“এ সময় প্রতিপক্ষ আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিলন গোলদারের নেতৃত্বে একদল লোক লাঠিসোটা ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে আমার উপর হামলা করে মাথা ও হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে কুপিয়ে জখম করে।”
পরে তাকে তার লোকজন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে বরে তিনি জানান।
তবে মিলন গোলদার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। এ হামলার সাথে তিনি কোনোভাবেই জড়িত নন বলে দাবি করেছেন। ঘটনার সময় তিনি অন্য এলাকায় গণসংযোগ করছিলেন বলে জানান।
এ ব্যাপারে বটিয়াঘাটা থানার ওসি এনামুল হক জানান, বাইনতলা এলাকায় বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থী জনির সাথে আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী মিলনের লোকজনের কথাকাটাকাটি ও হাতাহাতি হলে জনি আহত হন।

শেয়ার