রাষ্ট্রদ্রোহ: ১০ এপ্রিল খালেদাকে হাজিরের নির্দেশ

khaleda
সমাজের কথা ডেস্ক॥ রাষ্ট্রদ্রোহের মামলায় খালেদা জিয়ার সময়ের আবেদন মঞ্জুর করে তাকে ১০ এপ্রিল হাজির হতে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।
বৃহস্পতিবার এ মামলায় খালেদার হাজিরার দিন থাকলেও তিনি উপস্থিত না হয়ে আইনজীবী অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়ার মাধ্যমে মহানগর হাকিম আদালতে সময়ের আবেদন করেন।

সানাউল্লাহ মিয়া শুনানিতে বলেন, “অসুস্থতার কারণে তিনি আদালতে আসতে পারেননি। পরবর্তী তারিখে তিনি অবশ্যই আসবেন।”

অন্যদিকে মামলার বাদী মমতাজ উদ্দিন মেহেদী শুনানিতে বলেন, “খালেদা জিয়ার কাছে সমন পৌঁছানোর পরও তিনি আদালতে হাজির হননি। আমরা তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করছি।

শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম মোহাম্মদ জাকির হোসেন টিপু মামলার পরবর্তী তারিখ ঠিক করে দিয়ে ওই দিন খালেদাকে উপস্থিত থাকার নির্দেশ দেন।

গত ২১ ডিসেম্বর রাজধানীর রমনার ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা দলের এক আলোচনা সভায় খালেদা মুক্তিযুদ্ধে শহীদের সংখ্যা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে বলেন, “আজকে বলা হয়, এত লক্ষ লোক শহীদ হয়েছেন। এটা নিয়েও অনেক বিতর্ক আছে যে. আসলে কত লক্ষ লোক মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হয়েছেন। নানা বই-কিতাবে নানা রকম তথ্য আছে।”

ওই বক্তব্যে ‘দেশদ্রোহী’ মনোভাবের পরিচয় রয়েছে অভিযোগ করে গত ২৫ জানুয়ারি ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে খালেদার বিরুদ্ধে মামলা করেন আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী।

ঢাকার মহানগর হাকিম রাশেদ তালুকদার গত ২৫ জানুয়ারি ওই মামলা আমলে নিয়ে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদাকে ৩ মার্চ আদালতে হাজির হয়ে অভিযোগের বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।

শেয়ার