বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত সাইকেল গেল জাদুঘরে

cical
সমাজের কথা ডেস্ক॥ বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত রাজবাড়ীর একটি সাইকেল জাতীয় জাদুঘর কর্তৃপক্ষ আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রহণ করেছে।
বৃহস্পতিবার বিকেলে বালিয়াকান্দি উপজেলার মধুপুর গ্রামে ওয়াজেদ আলীর বাড়ি থেকে সাইকেলটি গ্রহণ করেন জাদুঘরের কিপার স্বপন কুমার বিশ্বাসসহ তিন সদস্যের একটি দল।
এ উপলক্ষে মধুপুর গ্রামে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে ওয়াজেদ আলী বলেন, ১৯৫৪ সালে যুক্তফ্রন্ট নির্বাচনের সময় প্রচারের কাজে রাজবাড়ী এসে বেশ কদিন ছিলেন বঙ্গবন্ধু।

“একদিন বেলগাছী গিয়ে বঙ্গবন্ধুর সাইকেলটি নষ্ট হয়ে যায়। তিনি তার সঙ্গীদের নিয়ে কাছেই দলীয় নেতা জৌকুরা গ্রামের মরগুব আহম্মেদ মোনাক্কা মিয়ার বাড়ি যান।”

মোনাক্কা ছিলেন ওয়াজেদ আলীর মামা।

এই সাইকেল নিয়েই তরুণ ওয়াজেদ মামাবাড়ি বেড়াতে গিয়েছিলেন। বঙ্গবন্ধু সাইকেলটি চাইলে ওয়াজেদ সানন্দে রাজি হন বলে জানান।

বঙ্গবন্ধু নির্বাচনী কাজ শেষে ওয়াজেদের সাইকেলটি তাকে ফিরিয়ে দেন।

১৯৪৮ সালে ২২০ টাকায় কেনা বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবিজড়িত ডানলপ কোম্পানির বিএসএ সাইকেলটি ছয় দশক ধরে আগলে রেখেছেন অশীতিপর ওয়াজেদ আলী।

ওয়াজেদ জানান, তিনি তার সাইকেলটি বিক্রি না করে জাদুঘরে দেওয়ার আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করায় এ নিয়ে রাজবাড়ীর সাংবাদিক, লেখক ও গবেষক বাবু মল্লিক ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠি লেখেন।

আবেগাপ্লুত ওয়াজেদ আলী সাইকেলটি হস্তান্তর করে বলেন, “আজ আমি গর্বিত।”

এ সময় তিনি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে একবার দেখা করার আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাবু মল্লিক, জাদুঘরের কিপার মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, বালিয়াকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুল হাসান ও স্থানীয় সাংবাদিকসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিরা।

জাদুঘরের কিপার সাইকেলটি দীর্ঘকাল সংরক্ষণ করায় ওয়াজেদ আলীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

শেয়ার