রুশদিকে হত্যায় আরও ৬ লাখ ডলার পুরস্কার ঘোষণা

Iran
সমাজের কথা ডেস্ক॥ ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক সালমান রুশদিকে হত্যার জন্য ঘোষিত পুরস্কারের সঙ্গে আরো ছয় লাখ মার্কিন ডলার যোগ করার ঘোষণা দিয়েছে।
রুশদির লেখা উপন্যাস ‘স্যাটানিক ভার্সেস’ প্রকাশ হওয়ার পর ১৯৮৯ সালে ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা প্রয়াত আয়াতুল্লাহ রুহুল্লাহ খামেনি রুশদিকে হত্যার ফতোয়া ঘোষণা করেন।
উপন্যাসটিতে ইসলাম ধর্মকে অবমাননা করা হয়েছে বলে মনে করা হয়। আর ধর্মাবমাননার অভিযোগে রুশদিকে হত্যার এই ফতোয়া দেন খামেনি।
ইরানের কট্টরপন্থিরা বলেন, খামেনির ডিক্রি অপরিবর্তনীয় এবং তার মৃত্যুর পরও তা বলবৎ রয়েছে।
দেশটির সম্পদশালী একটি ধর্মীয় গোষ্ঠী ইতিপূর্বে রুশদিকে হত্যার জন্য ২৭ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছিল। ২০১২ সালে পুরস্কারের অংক বাড়িয়ে ৩৩ লাখ মার্কিন ডলার করা হয়।
ঘোষিত নয়া পুরস্কারের অংশ যোগ করে বর্তমানে রুশদিকে হত্যার জন্য পুরস্কারের পরিমাণ ৩৯ লাখ মার্কিন ডলার।
ইরানের আধা-সরকারি ফারস সংবাদ সংস্থা ৪০টি সংবাদ সংস্থার তালিকা প্রকাশ করেছে যারা এই অর্থ দেবে। ফারস সংবাদ সংস্থা দেবে ৩০ হাজার ডলার।
একটি ডিজিটাল প্রযুক্তি প্রদর্শনীর আয়োজক মনসুর আমিরি বলেন, “গণমাধ্যম সংস্থাগুলো ঐতিহাসিক ওই ফতোয়ার ২৭ তম বার্ষিকীতে ৬ লাখ মার্কিন ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে। ওই ফতোয়া এখনো বলবৎ রয়েছে তা প্রমাণ করতেই এই ঘোষণা।”
রুশদির প্রতিনিধির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানিয়েছেন, এ ব্যাপারে রুশদির কোনো মন্তব্য নেই। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ও বিষয়টি নিয়ে কোনো মন্তব্য করেনি।
ওই ফতোয়া ঘোষণার পর রুশদি নয়বছর আত্মগোপনে থাকতে বাধ্য হন। উপন্যাসটির জাপানি ভাষার অনুবাদক ১৯৯১ সালে ছুরিকাঘাতে নিহত হন এবং বইটির প্রকাশনার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তিদের উপরও আঘাত আসে।

শেয়ার