মিশরে চারবছর বয়সী শিশুর যাবজ্জীবন!

misor
সমাজের কথা ডেস্ক॥ মিশরের একটি সামরিক আদালত হত্যার অভিযোগে চারবছর বয়সী এক শিশুকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছিল। গেল সপ্তায় দেওয়া এই দন্ডটি ভুলক্রমে হয়েছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

বিবিসি বলছে, ২০১৪ সালে ফায়ুম প্রদেশে মুসলিম ব্রাদারহুড সদস্যদের দাঙ্গার ঘটনায় সাজাপ্রাপ্ত ১১৫ জনের মধ্যে চারবছর বয়সী আহমেদ মনসুর কুরানি আলিও রয়েছে।
কুরানির আইনজীবী জানিয়েছেন, ওই দাঙ্গার সময় তার বয়স ছিল মাত্র একবছর। তিনি এ সম্পর্কিত তথ্য-প্রমাণও দাখিল করেছেন।
তবে ফেইসবুকে দেওয়া এক বার্তায় সেনা মুখপাত্র কর্নেল মোহাম্মেদ সামির বলেছেন, ১৬ বছর বয়সী একই নামের আহমেদ মনসুর কুরানি শাহরারাকে এই শাস্তি দেওয়া হয়েছে, আহমেদ মনসুর কুরানি আলিকে নয়। কিন্তু চারবছর বয়সী শিশুটির ক্ষেত্রে কী ঘটবে সেই বিষয়টি এখনো পরিষ্কার নয়।
শিশুটির আইনজীবী জানিয়েছেন, শিশুটির নাম ভুলক্রমে সন্দেহভাজনদের তালিকায় যুক্ত হয়েছে। আর আদালতের কর্মকর্তারাও ওই ঘটনার সময় শিশুটির বয়সের প্রত্যয়নপত্র বিচারকের কাছে দাখিল করেনি। চারবছর বয়সী কুরানিকে হত্যা, হত্যা প্রচেষ্টা এবং সরকারি সম্পত্তিতে আগুন লাগানোর ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছিল। এই ঘটনায় মিশরের বিচার ব্যবস্থা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে।

শেয়ার