স্বর্ণকন্যা শিলার সংবর্ধনায় মানুষের ঢল

motso
অভয়নগর সংবাদদাতা॥
কিছুদিন আগেও গরীব বলে ছিলেন উপেক্ষিত। বাড়িতে প্রবেশের ছিল না প্রয়োজনীয় রাস্তা, ছিল না বিদ্যুৎ। অভাবের তাড়নায় বিক্রি করে দিয়েছিলেন জাতীয় পর্যায়ের সাঁতার প্রতিযোগীতার জয় করা সোনার মেডেল। তবে রাতারাতি সব যেন বদলে গেছে। শুক্রবার ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরার পথে যশোরে জানানো হয় ফুলেল শুভেচ্ছা। আর গতকাল বৃহস্পতিবার নিজ উপজেলা অভয়নগরে ঝলমলে আলোয় উদ্ভাসিত মঞ্চ সাজিয়ে দেওয়া হয়েছে গণসংবর্ধনা।
ভারতে অনুষ্ঠিত সাফ প্রতিযোগীতায় সাঁতারে ডাবল সোনা জয়ে বদলে গেছে নিত্য অভাবের মধ্যে বসবাস যশোরের অভয়নগর উপজেলার মাহফুজা আক্তার শিলার জীবন গল্প। নিজ জেলা ক্রীড়া সংস্থায় এক যুগ ধরে অবাঞ্চিত শিলা এখন সবার আগ্রহের ব্যক্তি। আগের দিন জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা পেয়ে কেঁদেছিলেন। কিন্তু কাল হেসেছেন। নিজ উপজেলা অভয়নগরের গণসংবর্ধনায় মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত শিলার পাশে এদিন মা করিমন নেছা ও বাবা আলী আহম্মদ গাজী উপস্থিত ছিলেন। বিকাল থেকে সংবর্ধনা মঞ্চের সামনের প্যান্ডেলের নিচে রীতিমতো দর্শকের ঢল নামে।
সাঁতারের আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে প্রথম নারী সাঁতারু হিসেবে ডাবল সোনা জিতে গোটা দেশকে তাক লাগিয়ে দেন শিলা। সাথে সাথে বদলে যায় তার জীবনের গল্প। তার এই সাফল্যের সম্মান জানাতে অভয়নগর উপজেলাবাসীর উদ্যোগে শুক্রবার রাতে তাকে গণসংবর্ধনা দেয়া হয়। অভয়নগর উপজেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে নওয়াপাড়া শংকরপাশা মডেল হাইস্কুল মাঠে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে শিলাকে নানা সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুলে ফুলে ভরিয়ে দেয়া হয়। দেয়া হয় নগদ ৬০ হাজার টাকাসহ নানা উপহারসামগ্রী। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে অভাবের কারণে জাতীয় সাঁতার প্রতিযোগীতায় জয় করা স্বর্ণপদকটি নতুন করে সোনা দিয়ে মুড়িয়ে ফিরিয়ে দেয়ার কথা ছিল। কিন্তু গতকাল তা বাস্তবায়ন করতে পারেনি স্থানীয় প্রশাসন। অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিফাত মেহনাজ বলেন, ‘স্থানীয় স্বর্ণকাররা পদকের ডিজাইনটা করতে পারছেন না বলে আজই (শুক্রবার) সেটা শিলার হাতে তুলে দেয়া সম্ভব হয়নি।’
সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নওয়াপাড়ার বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শাহ জালাল হোসেন। অনুষ্ঠানে অতিথিদের মধ্যে ছিলেন যশোর জেলা পরিষদের প্রশাসক সাবেক এমপি শাহ হাদীউজ্জামান, যশোরের জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবির, উপজেলা চেয়ারম্যান নুরুল হক মোল্লা ও নওয়াপাড়া পৌরসভার মেয়র সুশান্ত দাস শান্ত। জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থার সভানেত্রী রুনা লায়লা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র এনামুল হক বাবুল প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মইনুর জহুর মুকুল।

শেয়ার