ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক বিমল রায় চৌধুরীকে সম্মাননা প্রদান

bimol
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ আন্তর্জাতিক স্বীকৃতিপ্রাপ্ত বাংলা ভাষা আন্দোলনের একজন সৈনিক বিমল রায় চৌধুরী। বর্তমানে বয়সের ভারে ন্যুব্জ যশোরবাসীর প্রিয় এ মানুষটি ইতোপূর্বে বারবার সম্মানিত হয়েছেন। মহান ভাষা দিবস ও স্বাধীনতা দিবসে সরকারি-বেসরকারিভাবে তাকে জানানো হয়েছে সম্মাননা। সর্বশেষ তাকে তাঁকে সম্মাননা প্রদান করেছে যশোর জেলা রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদ। শহরের বেজপাড়াস্থ বিমল রায় চৌধুরীর বাড়ির সামনের মাঠে গতকাল বিকেলে তাঁকে সম্মাননা প্রদান করা হয়েছে। এসময় আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।
এ সম্মাননা অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, প্রবীণ শিক্ষক তারাপদ দাস, মুক্তিযোদ্ধা অশোক রায়, ন্যাপের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক এনামুল হক, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি অসিম কু-ু, পৌর কাউন্সিলর সন্তোষ দত্ত। সভাপতিত্ব করেন যশোর জেলা রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদের সহ-সভাপতি ফখরে আলম। স্বাগত বক্তব্য দেন জেলা রবীন্দ্র সংগীত সম্মিলন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শুভঙ্কর গুপ্ত। সঞ্চালনা করেন লুবনা আফরোজ পাপ্পু।
সম্মানা প্রদান এ অনুষ্ঠানে আলোচকবৃন্দ বলেন, বিমল রায় চৌধুরী কালের সাক্ষী হয়ে দৃপ্ত পদক্ষেপে সমাজ থেকে কুসংস্কার নির্মূল করার জন্য ৯১ বছর বয়েসে আজও নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। সস্মাননা প্রদান ও আলোচনা শেষে বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের শিল্পীরা সংগীত পরিবেশন করেন। শেষে ফ্লিম সোসাইটি যশোরের উদ্যোগে ‘বায়ান্ন’র মিছিলে’ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হয়।
উল্লেখ্য, বিমল রায় চৌধুরী ১৯২৫ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি যশোর জেলার সদর উপজেলার নওয়াপাড়া গ্রামের বিখ্যাত রায় চৌধুরী বংশে জন্মগ্রহণ করেন।

শেয়ার