অভিজিৎ হত্যা তদন্তে ‘বড় অগ্রগতির’ আশায় বার্নিকাট

us ambasi
সমাজের কথা ডেস্ক॥ লেখক অভিজিৎ রায় হত্যাকান্ডে ‘প্রকৃত অপরাধীরা’ ধরা পড়বে বলে আশা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট।
“এটা খুব জটিল একটি মামলা। এতে বড় অগ্রগতি আসবে বলে আমরা আশা করছি, ” সাংবাদিকদের বলেছেন তিনি।
যুক্তরাষ্ট্রে আলামত পরীক্ষায় কিছু ডিএনএ নমুনা ধরা পড়ার কথা প্রকাশের পরদিন মঙ্গলবার একথা বললেন বার্নিকাট।
গত বছর ফেব্রুয়ারিতে বইমেলা চলাকালে ঢাকায় খুন হওয়া মুক্তমনা লেখক অভিজিৎ যুক্তরাষ্ট্রেরও নাগরিক ছিলেন।
২৬ ফেব্রুয়ারি রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি মোড়ের কাছে জঙ্গি কায়দায় ওই হামলায় অভিজিতের স্ত্রী রাফিদা আহমেদ বন্যাও আহত হন। তার একটি আঙুল চাপাতির আঘাতে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
হামলায় জড়িত সন্দেহে এখন পর্যন্ত আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এফবিআই মামলার তদন্তে পুলিশকে সহযোগিতা করছে।
ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার ১১ আলামত পরীক্ষায় এফবিআই কিছু ডিএনএ নমুনা পেয়েছে বলে সোমবার ঢাকার গোয়েন্দা পুলিশ জানিয়েছে।
বাংলাদেশ পুলিশের সহযোগিতায় তারা সন্তুষ্ট বলে জানান রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট।
যুক্তরাষ্ট্রের অর্থায়নে পরিচালিত একটি প্রকল্পের আওতায় বার্নিকাট এদিন ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরকে কিছু হালকা সরঞ্জাম হস্তান্তর করেন, যেগুলো ফার্স্ট এইড, অনুসন্ধান ও উদ্ধার কাজে ব্যবহৃত হবে।
অনুষ্ঠানে বক্তব্যে বাংলাদেশে বিশেষত ঢাকায় ‘ভূমিকম্প সহনশীলতা’ জোরদার করার ওপর গুরুত্ব দেন তিনি।
যে কোনো সংকট মোকাবেলায় প্রশিক্ষিত জরুরি সেবাদাতা ও স্বাস্থ্যকর্মী এবং দুর্যোগে যথাযথ পদক্ষেপ নিতে যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম রাখার কথা বলেন তিনি।

শেয়ার